আজঃ ১১ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - দুপুর ১:৫০

যৌতুকের মিথ্যা মামলা করলে সাজা ও জরিমানা

Published: সেপ্টে ১৬, ২০১৮ - ১০:১৯ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন :: যৌতুক নিয়ে মিথ্যা মামলা করলে পাঁচ বছরের জেল ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানার বিধান রেখে ‘যৌতুক নিরোধ বিল-২০১৮’ জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে।

রোববার মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন। বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে পাঠানো এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তি শেষে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়।

১৯৮০ সালের এ সংক্রান্ত আইন বাতিল করে নতুন এই আইনটি করা হচ্ছে। পাস হওয়া বিলে বলা হয়েছে, কাউকে ক্ষতি করার জন্য কেউ যৌতুকের মামলা বা অভিযোগ করলে ৫ বছরের জেল অথবা ৫০ হাজার টাকা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

এ ছাড়া কোনো এক পক্ষ প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে অন্য পক্ষের কাছে যৌতুক দাবি করলে সর্বোচ্চ ৫ বছরের, সর্বনিম্ন ১ বছরের জেল বা ৫০ হাজার টাকার জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান রাখা হয়েছে আইনে।

সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) বিল পাস:
‘সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) বিল-২০১৮’ রোববার জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে। কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী ‘সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) বিল-২০১৮’ সংসদে পাসের প্রস্তাব করেন। পরে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়। এর আগে বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে পাঠানো এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলো নিষ্পত্তি করা হয়।

আইনে নিবন্ধন ছাড়া সার উৎপাদন, আমদানি, সংরক্ষণ, বিতরণ, বিপণন, পরিবহন বা বিক্রি করলে ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড বা অনধিক ৫ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন :: যৌতুক নিয়ে মিথ্যা মামলা করলে পাঁচ বছরের জেল ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানার বিধান রেখে ‘যৌতুক নিরোধ বিল-২০১৮’ জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে।

রোববার মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন। বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে পাঠানো এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তি শেষে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়।

১৯৮০ সালের এ সংক্রান্ত আইন বাতিল করে নতুন এই আইনটি করা হচ্ছে। পাস হওয়া বিলে বলা হয়েছে, কাউকে ক্ষতি করার জন্য কেউ যৌতুকের মামলা বা অভিযোগ করলে ৫ বছরের জেল অথবা ৫০ হাজার টাকা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

এ ছাড়া কোনো এক পক্ষ প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে অন্য পক্ষের কাছে যৌতুক দাবি করলে সর্বোচ্চ ৫ বছরের, সর্বনিম্ন ১ বছরের জেল বা ৫০ হাজার টাকার জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করার বিধান রাখা হয়েছে আইনে।

সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) বিল পাস:
‘সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) বিল-২০১৮’ রোববার জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে। কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী ‘সার (ব্যবস্থাপনা) (সংশোধন) বিল-২০১৮’ সংসদে পাসের প্রস্তাব করেন। পরে বিলটি কণ্ঠভোটে পাস হয়। এর আগে বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে পাঠানো এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলো নিষ্পত্তি করা হয়।

আইনে নিবন্ধন ছাড়া সার উৎপাদন, আমদানি, সংরক্ষণ, বিতরণ, বিপণন, পরিবহন বা বিক্রি করলে ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড বা অনধিক ৫ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর