আজঃ ২৯শে কার্তিক ১৪২৫ - ১৩ই নভেম্বর ২০১৮ - রাত ১১:০৬

টুকেরবাজারে নদী ভাঙ্গণে ক্ষতিগ্রস্ত জনগণের বিক্ষোভ মিছিল

Published: অক্টো ১৬, ২০১৮ - ৪:৫০ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন :: সিলেট সদর উপজেলার ৬নং টুকেরবাজার ইউনিয়নের সুরমা নদীর ভাঙ্গনে ঘর-বাড়ি ও জায়গা-জমি হারানো ১৫শ প্রকৃত ভূমিহীন পরিবার ও নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত জনগণের মধ্যে সরকারি খাস জমি দ্রুত বন্দোবস্ত এবং স্থায়ী আবসন নিশ্চিত না করে বর্তমান স্থান থেকে উচ্ছেদ না করার দাবীতে ১৫ অক্টোবর সোমবার রাতে এক বিশাল সমাবেশ টুকেরবাজার সিএনজি স্ট্যান্ডে অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি তেমুখী পয়েন্টে গিয়ে শেষ হয়। ৬নং টুকেরবাজার ভূমিহীনদের সভাপতি মোঃ কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সিলেট জেলার দপ্তর সম্পাদক রমজান আলীর পরিচালনায় বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সিলেট জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শাহীন আলম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ সিলেট জেলার ভারপ্রাপ্ত সহ সভাপতি সুরুজ আলী, সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সাদেক মিয়া, সহ সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী।

ভূমিহীন পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক দুদু মিয়া, আখতার হোসেন, লিটন মিয়া, সুরাব মিয়া, আবুল হোসেন, জয়েন উদ্দিন, জামাল আহমদ, ইকবাল হোসেন, জাকারিয়া, সাইস্তে মিয়া, জসিম উদ্দিন, আলী আহমদ, সিএনজি স্ট্যান্ডে সাধারণ সম্পাদক কালাম মিয়া প্রমুখ।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমরা ৬নং টুকেরবাজার ইউনিয়নের সুরমা নদীর ভাঙ্গনে ঘর-বাড়ি ও জায়গা-জমি হারিয়ে অনেকে আশ্রয়ের জন্য বিভিন্ন জায়গায় মানবেতর জীবন যাপন করছি। অধিকাংশ মানুষ সিলেট-সুনামগঞ্জ রাস্তার পাশে ঝুপরি ঘর বানিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে বেঁচে থাকার সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু এরই মধ্যে সরকার উক্ত রাস্তা উন্নয়ন কাজ করবে বলে আমাদেরকে সেখান থেকে উচ্ছেদ করার নোটিশ প্রদান করেছে। এমতাবস্থায় আমরা কোথায় যাবো? তার কোন ব্যবস্থা করা হয়নি। তাই আমাদের দাবী বর্তমান আবাস স্থল থেকে উচ্ছেদের পূর্বেই আমাদেরকে স্থায়ী বাসস্থানের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মধ্যে বিনাশর্তে জামানত বিহীন ঋণ বিতরণ, রেশনিং ব্যবস্থা, ভিজিডি-ভিজি কার্ড প্রদান করার জোর দাবী জানান।

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন :: সিলেট সদর উপজেলার ৬নং টুকেরবাজার ইউনিয়নের সুরমা নদীর ভাঙ্গনে ঘর-বাড়ি ও জায়গা-জমি হারানো ১৫শ প্রকৃত ভূমিহীন পরিবার ও নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত জনগণের মধ্যে সরকারি খাস জমি দ্রুত বন্দোবস্ত এবং স্থায়ী আবসন নিশ্চিত না করে বর্তমান স্থান থেকে উচ্ছেদ না করার দাবীতে ১৫ অক্টোবর সোমবার রাতে এক বিশাল সমাবেশ টুকেরবাজার সিএনজি স্ট্যান্ডে অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশ শেষে এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি তেমুখী পয়েন্টে গিয়ে শেষ হয়। ৬নং টুকেরবাজার ভূমিহীনদের সভাপতি মোঃ কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সিলেট জেলার দপ্তর সম্পাদক রমজান আলীর পরিচালনায় বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট সিলেট জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক শাহীন আলম।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ সিলেট জেলার ভারপ্রাপ্ত সহ সভাপতি সুরুজ আলী, সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সাদেক মিয়া, সহ সাধারণ সম্পাদক আনছার আলী।

ভূমিহীন পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক দুদু মিয়া, আখতার হোসেন, লিটন মিয়া, সুরাব মিয়া, আবুল হোসেন, জয়েন উদ্দিন, জামাল আহমদ, ইকবাল হোসেন, জাকারিয়া, সাইস্তে মিয়া, জসিম উদ্দিন, আলী আহমদ, সিএনজি স্ট্যান্ডে সাধারণ সম্পাদক কালাম মিয়া প্রমুখ।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, আমরা ৬নং টুকেরবাজার ইউনিয়নের সুরমা নদীর ভাঙ্গনে ঘর-বাড়ি ও জায়গা-জমি হারিয়ে অনেকে আশ্রয়ের জন্য বিভিন্ন জায়গায় মানবেতর জীবন যাপন করছি। অধিকাংশ মানুষ সিলেট-সুনামগঞ্জ রাস্তার পাশে ঝুপরি ঘর বানিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে বেঁচে থাকার সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছি। কিন্তু এরই মধ্যে সরকার উক্ত রাস্তা উন্নয়ন কাজ করবে বলে আমাদেরকে সেখান থেকে উচ্ছেদ করার নোটিশ প্রদান করেছে। এমতাবস্থায় আমরা কোথায় যাবো? তার কোন ব্যবস্থা করা হয়নি। তাই আমাদের দাবী বর্তমান আবাস স্থল থেকে উচ্ছেদের পূর্বেই আমাদেরকে স্থায়ী বাসস্থানের ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মধ্যে বিনাশর্তে জামানত বিহীন ঋণ বিতরণ, রেশনিং ব্যবস্থা, ভিজিডি-ভিজি কার্ড প্রদান করার জোর দাবী জানান।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর