আজঃ ৪ঠা পৌষ ১৪২৫ - ১৮ই ডিসেম্বর ২০১৮ - রাত ২:৪০

খালেদার জামিন স্থগিত বিষয়ে শুনানি আপিল বিভাগে

Published: মার্চ ১৩, ২০১৮ - ৫:২২ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেওয়া হাইকোর্টের জামিন আদেশ স্থগিতের আবেদন শুনানির জন্য আপিল বিভাগে পাঠিয়ে দিয়েছেন চেম্বার বিচারপতি।

খালেদা জিয়ার জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মঙ্গলবার দুপুরে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদলতে আলাদা আবেদন করে। পরে আদালত সেটি শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

বুধবার এ বিষয়ে শুনানি হতে পারে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নাল আবেদীন বলেন, এর ফলে খালেদা জিয়ার মুক্তিতে আইনি কোনো বাধা নেই।

এর আগে সকালে খালেদার জামিন স্থগিত চেয়ে দুদকের আবেদনের কিছুক্ষণ পরই আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় পৃথক আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন দুদকের কৌঁসুলি খুরশীদ আলম খান ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একরামুল হক।

এরআগে গতকাল সোমবার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট।

উল্লেখ্য, বিদেশ থেকে আসা এতিমদের টাকা আত্মসাতের মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার পঞ্চম বিশেষ আদালত বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। ওই দিনই খালেদা জিয়াকে পুরান ঢাকার সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। রায়ে খালেদা জিয়ার বড় ছেলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ পাঁচ আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এ ছাড়া রায়ে আসামিদের দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা ৮০ পয়সা জরিমানা করা হয়।

এরপর খালেদা জিয়ার করা আপিল আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট গত ২২ ফেব্রুয়ারি আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেন এবং জরিমানা স্থগিত করেন। এরপর জামিন আবেদন করা হলে ২৫ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের একই বেঞ্চ বিচারিক আদালতের মামলার যাবতীয় নথি তলব করেন। আদেশে ১৫ দিনের মধ্যে হাইকোর্টে নথি পাঠাতে বলা হয়।হাইকোর্টের বেধে দেওয়া সেই ১৫ দিনের শেষ দিন ছিল রোববার। এদিন দুপুরে মামলার নথি ঢাকার পঞ্চম বিশেষ আদালত থেকে হাইকোর্টে আসে।

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেওয়া হাইকোর্টের জামিন আদেশ স্থগিতের আবেদন শুনানির জন্য আপিল বিভাগে পাঠিয়ে দিয়েছেন চেম্বার বিচারপতি।

খালেদা জিয়ার জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মঙ্গলবার দুপুরে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদলতে আলাদা আবেদন করে। পরে আদালত সেটি শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

বুধবার এ বিষয়ে শুনানি হতে পারে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নাল আবেদীন বলেন, এর ফলে খালেদা জিয়ার মুক্তিতে আইনি কোনো বাধা নেই।

এর আগে সকালে খালেদার জামিন স্থগিত চেয়ে দুদকের আবেদনের কিছুক্ষণ পরই আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় পৃথক আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন দুদকের কৌঁসুলি খুরশীদ আলম খান ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একরামুল হক।

এরআগে গতকাল সোমবার জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট।

উল্লেখ্য, বিদেশ থেকে আসা এতিমদের টাকা আত্মসাতের মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার পঞ্চম বিশেষ আদালত বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। ওই দিনই খালেদা জিয়াকে পুরান ঢাকার সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। রায়ে খালেদা জিয়ার বড় ছেলে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ পাঁচ আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এ ছাড়া রায়ে আসামিদের দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা ৮০ পয়সা জরিমানা করা হয়।

এরপর খালেদা জিয়ার করা আপিল আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্ট গত ২২ ফেব্রুয়ারি আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেন এবং জরিমানা স্থগিত করেন। এরপর জামিন আবেদন করা হলে ২৫ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের একই বেঞ্চ বিচারিক আদালতের মামলার যাবতীয় নথি তলব করেন। আদেশে ১৫ দিনের মধ্যে হাইকোর্টে নথি পাঠাতে বলা হয়।হাইকোর্টের বেধে দেওয়া সেই ১৫ দিনের শেষ দিন ছিল রোববার। এদিন দুপুরে মামলার নথি ঢাকার পঞ্চম বিশেষ আদালত থেকে হাইকোর্টে আসে।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর