আজঃ ১০ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - বিকাল ৪:১০

সিলেট তরুণলীগের সম্পাদক ইমরানসহ ৩ জন কারাগারে

Published: মার্চ ০৯, ২০১৭ - ৪:০৬ অপরাহ্ণ

sylpro24sylpro24

এস.পি.সেবু ( সিলেট) ::সিলেটের বিশ্বনাথে
সাংবাদিকের দায়ের করা
মারামারি মামলায় সিলেট
জেলা তরুণলীগের সাধারণ
সম্পাদক ইমরান হোসেন বাবুলসহ
একই পরিবারের ৩জনকে
জেলহাজতে পাটিয়েছেন
আদালত। বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ)
দুপুরে সিলেটের সিনিয়র
জুডিশিয়াল মেজিষ্ট্রেট কাকন
দে’র আদালতে স্ত্রী ও
ভাইবোনসহ ৪জন হাজিরা দেন।
এসময় ইমরান হোসেন বাবুলের
স্ত্রী মনোয়ারা পাখিকে বাদ
দিয়ে তার ছোটভাই কামরুল
হাসান জয়নাল ও ছোটবোন
রাজবিন আক্তার সুমিসহ ৩জনের
জামিন নামঞ্জুর করে
জেলহাজতে প্রেরণের
নির্দেশ দেয়া হয়। বিষয়টি
নিশ্চিত করেছেন আসামি
পক্ষের আইনজীবী
অ্যাডভোকেট শাহ মোশাহিদ
আলী। ইমরান হোসেন বাবুল
বিশ্বনাথ উপজেলার
রামাপাশা ইউনিয়নের
পুরানগাঁও (কোনাপাড়া)
গ্রামের মৃত ইব্রাহিম আলীর
ছেলে।
মামলার এজাহার সূত্রে
জানাগেছে, ২০১৬ সালের ২৫
সেপ্টেম্বর বিকেলে
বিশ্বনাথের পুরনাগাঁওয়ে তুচ্ছ
ঘটনার জেরে আপন চাচাতো
ভাইদের সঙ্গে মারামারির
ঘটনা ঘটে। এতে ইমরান হোসেন
বাবুল পক্ষের ধারালো অস্ত্রের
আঘাতে প্রতিপক্ষের সেলিম
আহমদসহ ৪জন গুরুতর আহত হন।
গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের
সিলেট ওসমানী হাসপাতালে
ভর্তি করার পর দীর্ঘ ১৫দিন
হাসপাতালে কাতরানোর পর
কিছুটা সুস্থ হন। ঘটনার দুইদিন পর
গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে আহত
সেলিমের ছোটভাই
সাংবাদিক আব্দুস সালাম
বাদী হয়ে ইমরান হোসেন
বাবুলসহ ৪জনকে আসামি করে
থানায় মামলা দায়ের করেন,
(মামলা নং ২০)।

Facebook Comments

এস.পি.সেবু ( সিলেট) ::সিলেটের বিশ্বনাথে
সাংবাদিকের দায়ের করা
মারামারি মামলায় সিলেট
জেলা তরুণলীগের সাধারণ
সম্পাদক ইমরান হোসেন বাবুলসহ
একই পরিবারের ৩জনকে
জেলহাজতে পাটিয়েছেন
আদালত। বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ)
দুপুরে সিলেটের সিনিয়র
জুডিশিয়াল মেজিষ্ট্রেট কাকন
দে’র আদালতে স্ত্রী ও
ভাইবোনসহ ৪জন হাজিরা দেন।
এসময় ইমরান হোসেন বাবুলের
স্ত্রী মনোয়ারা পাখিকে বাদ
দিয়ে তার ছোটভাই কামরুল
হাসান জয়নাল ও ছোটবোন
রাজবিন আক্তার সুমিসহ ৩জনের
জামিন নামঞ্জুর করে
জেলহাজতে প্রেরণের
নির্দেশ দেয়া হয়। বিষয়টি
নিশ্চিত করেছেন আসামি
পক্ষের আইনজীবী
অ্যাডভোকেট শাহ মোশাহিদ
আলী। ইমরান হোসেন বাবুল
বিশ্বনাথ উপজেলার
রামাপাশা ইউনিয়নের
পুরানগাঁও (কোনাপাড়া)
গ্রামের মৃত ইব্রাহিম আলীর
ছেলে।
মামলার এজাহার সূত্রে
জানাগেছে, ২০১৬ সালের ২৫
সেপ্টেম্বর বিকেলে
বিশ্বনাথের পুরনাগাঁওয়ে তুচ্ছ
ঘটনার জেরে আপন চাচাতো
ভাইদের সঙ্গে মারামারির
ঘটনা ঘটে। এতে ইমরান হোসেন
বাবুল পক্ষের ধারালো অস্ত্রের
আঘাতে প্রতিপক্ষের সেলিম
আহমদসহ ৪জন গুরুতর আহত হন।
গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের
সিলেট ওসমানী হাসপাতালে
ভর্তি করার পর দীর্ঘ ১৫দিন
হাসপাতালে কাতরানোর পর
কিছুটা সুস্থ হন। ঘটনার দুইদিন পর
গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাতে আহত
সেলিমের ছোটভাই
সাংবাদিক আব্দুস সালাম
বাদী হয়ে ইমরান হোসেন
বাবুলসহ ৪জনকে আসামি করে
থানায় মামলা দায়ের করেন,
(মামলা নং ২০)।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর