আজঃ ২৭শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ - ১১ই ডিসেম্বর ২০১৮ - রাত ১১:১৩

গোলাপগঞ্জে রাত পোহালেই নির্বাচন, প্রার্থীদের আশ্বাসেই বিশ্বাস করছেন ভোটাররা

Published: অক্টো ০২, ২০১৮ - ৮:০২ অপরাহ্ণ

সাকিব আল মামুন, গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: রাত পোহালেই গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে উপ-নির্বাচন। নির্বাচনী প্রচারনার শেষ সময় গতকাল সোমবার মধ্যরাত পর্যন্ত মেয়র পদপ্রার্থীরা নির্বাচনী লড়াইয়ে সমানতালে প্রচারনায় ক্লান্তিহীন নির্ঘুম সময় অতিবাহিত করেছেন। এখন অধীর আগ্রহে ক্ষণ গণণায় ভোটার, মেয়র প্রার্থী ও কর্মী সমর্থকরা।

এদিকে নির্বাচন গ্রহনের সব ধরনের প্রস্ততি সম্পন্ন হয়েছে বলে সিলেট প্রতিদিনকে জানান সিনিয়র নির্বাচন অফিসার ও গোলাপগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে দায়িত্বরত রিটার্নিং অফিসার খুরশেদ আলম। তিনি আরও জানান, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সুষ্ঠ নির্বাচন আয়োজনের লক্ষ্যে নির্বাচনী এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে। যেকোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে তৎপরতাও জোরদার করা হচ্ছে।

এদিকে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ’র দলীয় প্রার্থী গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ও সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলু নৌকা প্রতীক, (বিদ্রোহী প্রার্থী) যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগ’র যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল (জগ) প্রতীক, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস (নারিকেল গাছ) প্রতীক, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন (মোবাইল ফোন) প্রতীক নিয়ে পৌরসভার উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

মেয়র পদপ্রার্থীরা নির্বাচনকে ঘিরে নির্বাচনী মহড়া, গণসংযোগ, মাইকিং ও লিফলেটিংয়ে কমতি রাখেননি। নির্বাচনী প্রচারনার শেষ দিনে মধ্যরাত পর্যন্ত দিনরাত এক করে বিরামহীন ভাবে পৌর শহরের ৯টি ওয়ার্ড চষে গণসংযোগ করেছেন মেয়র প্রার্থী ও কর্মী সমর্থকরা। গণসংযোগে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় স্বতস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করে কর্মী সমর্থকসহ শত শত সাধারণ ভোটার। প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয় করতে দিয়েছেন নানাধরনের উন্নয়নের আশ্বাস। আশ্বাসেই বিশ্বাস করছেন ভোটাররা। আর এ বিশ্বাসেই ধরাসয়ী হবেন না এমন মন্তব্য মেয়র প্রার্থীদের। উপনির্বাচনে চার মেয়র প্রার্থীর প্রচারনায় মুখরিত দেখা যায় পুরো পৌর শহর। এক প্রার্থী অন্য প্রার্থীর কাছে ভোট ও দোয়া চাইতে দেখা যায়। সব মিলিয়ে গোলাপগঞ্জের পৌর এলাকা নির্বাচনী উৎসবের আমেজে বিভূর। সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আগামী দুই বৎসরের জন্য পৌর অভিভাবক হওয়ার লড়াইয়ে চার প্রার্থীর কেউই পিছিয়ে নেই নির্বাচনী মাঠে। নির্বাচনী এলাকায় নিজের অবস্থান, জনপ্রিয়তা বজায়ের মাধ্যমেই মর্যাদার লড়াইয়ে পৌর অভিভাবক নির্বাচিত হওয়া এখন ক্ষণ গণণায়।

উল্লেখ্য, গোলাপগঞ্জ পৌরসভা উপনির্বাচনে ৪জন মেয়র প্রার্থীর বিপরীতে পৌর সভার ৯টি ওয়ার্ডের ৯টি কেন্দ্রে ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে পৌর অভিভাবক নির্বাচিত করবেন। মোট ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটারের মধ্যে ১০হাজার ৯শ ৫৮জন পুরুষ এবং ১০হাজার ৬শ ৭৪জন মহিলা।

পৌর শহরের গোলাপগঞ্জ সরকারি এমসি একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজ, ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোঁষগাও মাদ্রাসা, হাজী জছির আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দাড়িপাতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোগারকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রনকেলী ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কোয়ালিটি স্কুল, সৈয়দ তানভীর হোসেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এই ৯টি প্রতিষ্টানের মোট ৫৯টি কক্ষে ভোট গ্রহণ করা হবে।

Facebook Comments

সাকিব আল মামুন, গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: রাত পোহালেই গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে উপ-নির্বাচন। নির্বাচনী প্রচারনার শেষ সময় গতকাল সোমবার মধ্যরাত পর্যন্ত মেয়র পদপ্রার্থীরা নির্বাচনী লড়াইয়ে সমানতালে প্রচারনায় ক্লান্তিহীন নির্ঘুম সময় অতিবাহিত করেছেন। এখন অধীর আগ্রহে ক্ষণ গণণায় ভোটার, মেয়র প্রার্থী ও কর্মী সমর্থকরা।

এদিকে নির্বাচন গ্রহনের সব ধরনের প্রস্ততি সম্পন্ন হয়েছে বলে সিলেট প্রতিদিনকে জানান সিনিয়র নির্বাচন অফিসার ও গোলাপগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে দায়িত্বরত রিটার্নিং অফিসার খুরশেদ আলম। তিনি আরও জানান, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সুষ্ঠ নির্বাচন আয়োজনের লক্ষ্যে নির্বাচনী এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন থাকবে। যেকোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে তৎপরতাও জোরদার করা হচ্ছে।

এদিকে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ’র দলীয় প্রার্থী গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ও সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলু নৌকা প্রতীক, (বিদ্রোহী প্রার্থী) যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগ’র যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল (জগ) প্রতীক, উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস (নারিকেল গাছ) প্রতীক, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন (মোবাইল ফোন) প্রতীক নিয়ে পৌরসভার উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

মেয়র পদপ্রার্থীরা নির্বাচনকে ঘিরে নির্বাচনী মহড়া, গণসংযোগ, মাইকিং ও লিফলেটিংয়ে কমতি রাখেননি। নির্বাচনী প্রচারনার শেষ দিনে মধ্যরাত পর্যন্ত দিনরাত এক করে বিরামহীন ভাবে পৌর শহরের ৯টি ওয়ার্ড চষে গণসংযোগ করেছেন মেয়র প্রার্থী ও কর্মী সমর্থকরা। গণসংযোগে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় স্বতস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করে কর্মী সমর্থকসহ শত শত সাধারণ ভোটার। প্রার্থীরা ভোটারদের মন জয় করতে দিয়েছেন নানাধরনের উন্নয়নের আশ্বাস। আশ্বাসেই বিশ্বাস করছেন ভোটাররা। আর এ বিশ্বাসেই ধরাসয়ী হবেন না এমন মন্তব্য মেয়র প্রার্থীদের। উপনির্বাচনে চার মেয়র প্রার্থীর প্রচারনায় মুখরিত দেখা যায় পুরো পৌর শহর। এক প্রার্থী অন্য প্রার্থীর কাছে ভোট ও দোয়া চাইতে দেখা যায়। সব মিলিয়ে গোলাপগঞ্জের পৌর এলাকা নির্বাচনী উৎসবের আমেজে বিভূর। সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আগামী দুই বৎসরের জন্য পৌর অভিভাবক হওয়ার লড়াইয়ে চার প্রার্থীর কেউই পিছিয়ে নেই নির্বাচনী মাঠে। নির্বাচনী এলাকায় নিজের অবস্থান, জনপ্রিয়তা বজায়ের মাধ্যমেই মর্যাদার লড়াইয়ে পৌর অভিভাবক নির্বাচিত হওয়া এখন ক্ষণ গণণায়।

উল্লেখ্য, গোলাপগঞ্জ পৌরসভা উপনির্বাচনে ৪জন মেয়র প্রার্থীর বিপরীতে পৌর সভার ৯টি ওয়ার্ডের ৯টি কেন্দ্রে ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে পৌর অভিভাবক নির্বাচিত করবেন। মোট ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটারের মধ্যে ১০হাজার ৯শ ৫৮জন পুরুষ এবং ১০হাজার ৬শ ৭৪জন মহিলা।

পৌর শহরের গোলাপগঞ্জ সরকারি এমসি একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজ, ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোঁষগাও মাদ্রাসা, হাজী জছির আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দাড়িপাতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোগারকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রনকেলী ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কোয়ালিটি স্কুল, সৈয়দ তানভীর হোসেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এই ৯টি প্রতিষ্টানের মোট ৫৯টি কক্ষে ভোট গ্রহণ করা হবে।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর