আজঃ ৫ই পৌষ ১৪২৫ - ১৯শে ডিসেম্বর ২০১৮ - রাত ৮:৫০

গোলাপগঞ্জ উপ-নির্বাচনের বাকী ১দিন, নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার

Published: অক্টো ০১, ২০১৮ - ১০:৫৯ অপরাহ্ণ

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপনির্বাচনের বাকী আর মাত্র ১দিন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান সিনিয়র নির্বাচন অফিসার ও গোলাপগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে দায়িত্বরত রিটার্নিং অফিসার খুরশেদ আলম। তিনি বলেন, নির্বাচনের ৩২ ঘন্টা পূর্ব থেকে সকল প্রকার সভা সমাবেশ বন্ধ থাকবে। তাছাড়া সুষ্ট নির্বাচন পরিচালনার জন্য চারটি স্তরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে শেষ মূহুর্তের নির্বাচনী গনসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। প্রার্থী সমর্থকরা নিজেদের পক্ষে বিজয় নিশ্চিত করতে নানা কৌশল অবলম্বনের পাশাপাশি পৌরসভাকে বাংলাদেশের মধ্যে একটি মডেল হিসেবে গঠনের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপনির্বাচনে নৌকার পাশাপাশি আরও ৩জন স্বতন্ত্র হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। শেষ মূহুর্তের নির্বাচনী প্রচারনায় দিনরাত এক করে ৪প্রার্থীই গণসংযোগে ব্যস্থ সময় অতিবাহিত করছেন।

সোমবার প্রচারনার শেষ পৌর শহরের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় প্রচারনা করেন, জাকারিয়া আহমদ পাপলু, মহিউস সুন্নাহ নার্জিস, আমিনুল ইসলাম রাবেল ও গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহিন সহ তাদের অনুসারী কর্মী সমর্থকরা।

গতকাল বিকেলে উপজেলার চৌমুহনী তে নৌকার পক্ষে এক পথসভা অনুষ্টিত হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগ’র সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান এমপি, সিলেট জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান এ্যাড. লুৎফুর রহমান, সিলেট সিটি কর্পোরেশন’র সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন কামরান, এ্যাড. নাসির উদ্দিন প্রমুখ। এসময় বক্তারা নৌকায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য উপস্থিত সকলের প্রতি আহবান জানান।

এদিকে যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগ’র যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল (জগ), উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস (নারিকেল গাছ) প্রতীক, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন (মোবাইল ফোন) প্রতীক নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় গণসংযোগ করেন। এবং উন্নয়নের বিভিন্ন আশ্বাস প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, ৩ অক্টোবর বুধবার গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপ নির্বাচনে মোট ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এ পৌরসভায় মোট ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ১০হাজার ৯শ ৫৮জন এবং মহিলা ১০হাজার ৬শ ৭৪জন রয়েছেন। ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত গোলাপগঞ্জ পৌরসভার ভোট কেন্দ্র ৯টি , তন্মধ্যে ১নং ভোটকেন্দ্র গোলাপগঞ্জ সরকারী এমসি একাডেমী স্কুল ও কলেজে মোট ভোটার ২১শ ৯৬জন। ২নং ভোটকন্দ্র ২নং ফুলবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৩শ ৮৫জন। ৩নং ভোটকেন্দ্র ঘোষঁগাও মাদ্রাসায় ১৭শ ৪২জন। ৪নং ভোটকেন্দ্র হাজী জছির আলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২১শ ৮৪জন। ৫নং ভোটকেন্দ্র দাড়িপাতন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৫শ ৬৯জন। ৬নং ভোটকেন্দ্র ঘোগারকুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৫শ ৮৯জন। ৭নং ভোটকেন্দ্র রণকেলী ২নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৮শ ৫১জন। ৮নং ভোটকেন্দ্র কোয়ালিটি স্কুল উপজেলা কমপ্লেক্সে ২৬শ ৮জন। ৯নং ভোটকেন্দ্র সৈয়দ তানভীর হোসেন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৫শ ৮জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

Facebook Comments

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপনির্বাচনের বাকী আর মাত্র ১দিন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান সিনিয়র নির্বাচন অফিসার ও গোলাপগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে দায়িত্বরত রিটার্নিং অফিসার খুরশেদ আলম। তিনি বলেন, নির্বাচনের ৩২ ঘন্টা পূর্ব থেকে সকল প্রকার সভা সমাবেশ বন্ধ থাকবে। তাছাড়া সুষ্ট নির্বাচন পরিচালনার জন্য চারটি স্তরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে শেষ মূহুর্তের নির্বাচনী গনসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। প্রার্থী সমর্থকরা নিজেদের পক্ষে বিজয় নিশ্চিত করতে নানা কৌশল অবলম্বনের পাশাপাশি পৌরসভাকে বাংলাদেশের মধ্যে একটি মডেল হিসেবে গঠনের প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপনির্বাচনে নৌকার পাশাপাশি আরও ৩জন স্বতন্ত্র হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। শেষ মূহুর্তের নির্বাচনী প্রচারনায় দিনরাত এক করে ৪প্রার্থীই গণসংযোগে ব্যস্থ সময় অতিবাহিত করছেন।

সোমবার প্রচারনার শেষ পৌর শহরের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় প্রচারনা করেন, জাকারিয়া আহমদ পাপলু, মহিউস সুন্নাহ নার্জিস, আমিনুল ইসলাম রাবেল ও গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহিন সহ তাদের অনুসারী কর্মী সমর্থকরা।

গতকাল বিকেলে উপজেলার চৌমুহনী তে নৌকার পক্ষে এক পথসভা অনুষ্টিত হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগ’র সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান এমপি, সিলেট জেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান এ্যাড. লুৎফুর রহমান, সিলেট সিটি কর্পোরেশন’র সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন কামরান, এ্যাড. নাসির উদ্দিন প্রমুখ। এসময় বক্তারা নৌকায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য উপস্থিত সকলের প্রতি আহবান জানান।

এদিকে যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগ’র যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল (জগ), উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস (নারিকেল গাছ) প্রতীক, পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন (মোবাইল ফোন) প্রতীক নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় গণসংযোগ করেন। এবং উন্নয়নের বিভিন্ন আশ্বাস প্রদান করেন।

উল্লেখ্য, ৩ অক্টোবর বুধবার গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপ নির্বাচনে মোট ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এ পৌরসভায় মোট ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটারের মধ্যে পুরুষ ১০হাজার ৯শ ৫৮জন এবং মহিলা ১০হাজার ৬শ ৭৪জন রয়েছেন। ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত গোলাপগঞ্জ পৌরসভার ভোট কেন্দ্র ৯টি , তন্মধ্যে ১নং ভোটকেন্দ্র গোলাপগঞ্জ সরকারী এমসি একাডেমী স্কুল ও কলেজে মোট ভোটার ২১শ ৯৬জন। ২নং ভোটকন্দ্র ২নং ফুলবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৩শ ৮৫জন। ৩নং ভোটকেন্দ্র ঘোষঁগাও মাদ্রাসায় ১৭শ ৪২জন। ৪নং ভোটকেন্দ্র হাজী জছির আলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২১শ ৮৪জন। ৫নং ভোটকেন্দ্র দাড়িপাতন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৫শ ৬৯জন। ৬নং ভোটকেন্দ্র ঘোগারকুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৫শ ৮৯জন। ৭নং ভোটকেন্দ্র রণকেলী ২নং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৮শ ৫১জন। ৮নং ভোটকেন্দ্র কোয়ালিটি স্কুল উপজেলা কমপ্লেক্সে ২৬শ ৮জন। ৯নং ভোটকেন্দ্র সৈয়দ তানভীর হোসেন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৫শ ৮জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর