আজঃ ৪ঠা পৌষ ১৪২৫ - ১৮ই ডিসেম্বর ২০১৮ - রাত ২:৪০

হ্যালো ৯৯৯ সার্ভিস: কুলাউড়ায় ধর্ষক কবিরাজ পুলিশের খাঁচায়

Published: এপ্রি ১৭, ২০১৮ - ৫:৫৪ অপরাহ্ণ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: বোনকে ধর্ষনের খবর পুলিশের ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি সার্ভিস ৯৯৯ খবর দিলে নিমিষেই কুলাউড়া থানা পুলিশের খাঁচায় বন্দি হল ভন্ড প্রতারক কবিরাজ মানিক মিয়া (২৮)কে।

জেলার কুলাউড়ায় কবিরাজি করে চুরি হওয়া মোবাইল উদ্ধার করার নাম করে এক মহিলাকে ধর্ষণ করার অভিযোগে কবিরাজ মানিক মিয়া (২৮) কে  আটক করেছে পুলিশ।আটক মানিক মিয়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়িনের পূর্ব ফটিককুলী গ্রামের বাসিন্দা।  পেশায় সে একজন সিএনজি চালক। সে কবিরাজির নাম করে মানুষের সাথে
প্রতারণা করে বলে জানিয়েছে পুলিশ।মঙ্গলবার (১৭এপ্রিল) ভোরে উপজেলার মহিষমারা এলাকা থেকে তাকে আটক করেপুলিশ।আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ
সুপার আবু ইউছুফ।

তিনি বলেন, মহিষমারা গ্রামের একটি পরিবারের Samsung Galaxy মোবাইল চুরি হয়েছে গত পরশু।  প্রতিবেশির মাধ্যমে তারা জানতে পারেন কর্মধা ইউনিয়নের মানিক মিয়া কবিরাজিরর মাধ্যমে মোবাইল ফোন উদ্ধার করতে পারে।  পরে সোমবার(১৬এপ্রিল) রাত প্রায় এগারোটার দিকে তাদের বাড়িতে যায়। প্রথমে তাবিজ লিখে এক এক জনকে তা পোড়াতে বলে। ভিকটিমকে হাড়ির মধ্যে কচু পাতায় মোড়ানো তাবিজ নিয়ে তিন রাস্তায় আসতে বলে।  রাত ৩টার দিকে ভিকটিমের ছোটবোন ছাড়া কাউকে সাথে আসতে দেয়নি মানিক কবিরাজ। তিন রাস্তার মোড়ে আসলে ছোট বোনকে রেখে ভিকটিমকে আড়ালে আসতে বলে মানিক। না আসলে বিভিন্ন ভয় ভীতি দেখায়। পরে
ভিকটিমকে ঝোপঝাড়ে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি টের পেয়ে ভিকটিমের ছোট বোন
বাসায় খবর দেয়।  এর পর তার ভাই পুলিশের ৯৯৯ সার্ভিস নাম্বারে কল দিলে কুলাউড়া থানা পুলিশ মানিককে ভোরে গ্রেফতার করে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Facebook Comments

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: বোনকে ধর্ষনের খবর পুলিশের ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি সার্ভিস ৯৯৯ খবর দিলে নিমিষেই কুলাউড়া থানা পুলিশের খাঁচায় বন্দি হল ভন্ড প্রতারক কবিরাজ মানিক মিয়া (২৮)কে।

জেলার কুলাউড়ায় কবিরাজি করে চুরি হওয়া মোবাইল উদ্ধার করার নাম করে এক মহিলাকে ধর্ষণ করার অভিযোগে কবিরাজ মানিক মিয়া (২৮) কে  আটক করেছে পুলিশ।আটক মানিক মিয়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়িনের পূর্ব ফটিককুলী গ্রামের বাসিন্দা।  পেশায় সে একজন সিএনজি চালক। সে কবিরাজির নাম করে মানুষের সাথে
প্রতারণা করে বলে জানিয়েছে পুলিশ।মঙ্গলবার (১৭এপ্রিল) ভোরে উপজেলার মহিষমারা এলাকা থেকে তাকে আটক করেপুলিশ।আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ
সুপার আবু ইউছুফ।

তিনি বলেন, মহিষমারা গ্রামের একটি পরিবারের Samsung Galaxy মোবাইল চুরি হয়েছে গত পরশু।  প্রতিবেশির মাধ্যমে তারা জানতে পারেন কর্মধা ইউনিয়নের মানিক মিয়া কবিরাজিরর মাধ্যমে মোবাইল ফোন উদ্ধার করতে পারে।  পরে সোমবার(১৬এপ্রিল) রাত প্রায় এগারোটার দিকে তাদের বাড়িতে যায়। প্রথমে তাবিজ লিখে এক এক জনকে তা পোড়াতে বলে। ভিকটিমকে হাড়ির মধ্যে কচু পাতায় মোড়ানো তাবিজ নিয়ে তিন রাস্তায় আসতে বলে।  রাত ৩টার দিকে ভিকটিমের ছোটবোন ছাড়া কাউকে সাথে আসতে দেয়নি মানিক কবিরাজ। তিন রাস্তার মোড়ে আসলে ছোট বোনকে রেখে ভিকটিমকে আড়ালে আসতে বলে মানিক। না আসলে বিভিন্ন ভয় ভীতি দেখায়। পরে
ভিকটিমকে ঝোপঝাড়ে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি টের পেয়ে ভিকটিমের ছোট বোন
বাসায় খবর দেয়।  এর পর তার ভাই পুলিশের ৯৯৯ সার্ভিস নাম্বারে কল দিলে কুলাউড়া থানা পুলিশ মানিককে ভোরে গ্রেফতার করে।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর