আজঃ ১লা কার্তিক ১৪২৫ - ১৬ই অক্টোবর ২০১৮ - রাত ১১:৪৫

সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের বিক্ষোভ

Published: নভে ২৮, ২০১৭ - ৮:০২ অপরাহ্ণ

সিলেট :: হোটেল সেক্টরে বাজারমূল্যের সাথে সংগতি রেখে নূন্যতম মূল্য মজুরি ঘোষনা চান সিলেটের হোটেল শ্রমিকরা। তারা অবিলম্বে ওই দাবি বাস্তবায়নে সরকার ও হোটেল-রেস্টুরেন্ট মালিকদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। মঙ্গলবার বিকালে সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন ও জেলা বাবুর্চি কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত মিছিল পরবর্তী সমাবেশে শ্রমিক নেতারা এ আহবান জানান।

তারা বলেন, হোটেল শ্রমিকরা সীমিত আয় করেন। যার কারণে সংসার চালনা তাদের পক্ষে অসম্ভব। শ্রমিক নেতারা সিলেটে শ্রম আদালত স্থাপনসহ মজুরি ও শ্রম আইন বাস্তবায়নের জোর দাবি জানান।

নগরীর রেজিস্ট্রি মাঠ থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিটি পয়েন্টে সমাবেশ মিলিত হয়। হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এম সফর আলী খানের পরিচালনায় এতে বক্তব্য দেন, মহানগর হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি বদরুল ইসলাম কালা মিয়া, জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের অর্থ সম্পাদক ইউসুফ জামিল, প্রচার সম্পাদক মো. জমির আলী, দপ্তর সম্পাদক মো. বশির মিয়া, বাবুর্চি কমিটির সভাপতি হারুনুর রশিদ, উজ্জল মিয়া, নবীর হোসেন আকাশ, জাহেদ আহমদ, শাহ আলম, মুক্তার হোসেন, দুদু মিয়া, আহমদ আলী, হোসেন মিয়া, সেজুয়ান আহমদ, ফজলু মিয়া, হারুন মিয়া, মোজাম্মেল আলী প্রমুখ।

Facebook Comments

সিলেট :: হোটেল সেক্টরে বাজারমূল্যের সাথে সংগতি রেখে নূন্যতম মূল্য মজুরি ঘোষনা চান সিলেটের হোটেল শ্রমিকরা। তারা অবিলম্বে ওই দাবি বাস্তবায়নে সরকার ও হোটেল-রেস্টুরেন্ট মালিকদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। মঙ্গলবার বিকালে সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন ও জেলা বাবুর্চি কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত মিছিল পরবর্তী সমাবেশে শ্রমিক নেতারা এ আহবান জানান।

তারা বলেন, হোটেল শ্রমিকরা সীমিত আয় করেন। যার কারণে সংসার চালনা তাদের পক্ষে অসম্ভব। শ্রমিক নেতারা সিলেটে শ্রম আদালত স্থাপনসহ মজুরি ও শ্রম আইন বাস্তবায়নের জোর দাবি জানান।

নগরীর রেজিস্ট্রি মাঠ থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিটি পয়েন্টে সমাবেশ মিলিত হয়। হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এম সফর আলী খানের পরিচালনায় এতে বক্তব্য দেন, মহানগর হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি বদরুল ইসলাম কালা মিয়া, জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের অর্থ সম্পাদক ইউসুফ জামিল, প্রচার সম্পাদক মো. জমির আলী, দপ্তর সম্পাদক মো. বশির মিয়া, বাবুর্চি কমিটির সভাপতি হারুনুর রশিদ, উজ্জল মিয়া, নবীর হোসেন আকাশ, জাহেদ আহমদ, শাহ আলম, মুক্তার হোসেন, দুদু মিয়া, আহমদ আলী, হোসেন মিয়া, সেজুয়ান আহমদ, ফজলু মিয়া, হারুন মিয়া, মোজাম্মেল আলী প্রমুখ।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর