আজঃ ৮ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - সকাল ৭:৩৯

সিলেট জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের বিদায় সংবর্ধনা

Published: এপ্রি ১৬, ২০১৮ - ৮:১০ অপরাহ্ণ

প্রতিদিন ডেস্ক::সিলেট জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবু ওবাইদা বলেছেন, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নান সিলেট বিচার বিভাগে যে কর্মদক্ষতা দেখিয়ে গেছেন তা সিলেটবাসী মনে রাখবে। তিনি বলেন, আজকের অনুষ্ঠানে উনারে যে মানপত্র দেয়া হলো সেখানে তার কর্মদক্ষতা আরো প্রতিফলিত হয়েছে। তিনি তার সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ জীবন কামনা করেন।
গতকাল ১৬ এপ্রিল সোমবার বিকালে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর কনফোরেন্স হলে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সিলেটের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণের উদ্যোগে জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আবদুল হান্নান এর জেলা জজ পদে পদোন্নতি ও বদলী এবং জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ইসরাত জাহানের বদলী উপলক্ষে আয়োজিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সিলেট জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নেজাতর বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আতিকুল হায়দার এর সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিদায়ী ও সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আবদুল হান্নান ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ইসরাত জাহান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ খায়রুল আমিন, কাকঁন দে, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, শারমীন খানম নীলা, সুলেখা দে, লায়লা মেহের বানু, ফারজানা শাকিলা সুমু চৌধুরী। লেনিন পোদ্দারের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে সূচিত অনুষ্ঠানে অফিস সহায়কদের পক্ষে আলজাফ হোসেন, প্রসেস সার্ভারদের পক্ষে হারুনুর রশিদ রাসেল, সহকারী মোঃ জাকির হোসেন, বেঞ্চ সহকারীদের পক্ষে রইজুল ইসলাম, তপু দে, স্টেনো গ্রাফাদের পক্ষে দিপংকর পাল, মোঃ আনোয়ারুল হক, নাজির জজ কোর্ট মোঃ কামাল উদ্দিন চৌধুরী, সকল কর্মচারীর পক্ষে মোঃ নিজাম উদ্দীন বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথি মোঃ আবু ওবাইদা-কে মৌসুমী আক্তার, বিদায়ী অতিথি কাজী আবদুল হান্নান-কে নিজাম উদ্দিন, ইসরাত জাহান-কে তপু দে ও বিশেষ অতিথিবৃন্দকে ঝুমা রাণী পাল, বাগ্মী রাণী পাল, শুক্লা রাণী শর্মা, আয়েশা বেগম, রুজিনা বেগম, সুহেল আহমদ, শহিদুল ইসলাম, আব্দুল্লাহ আল মাসুম ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে নেন। অনুষ্ঠানে মানপত্র পাঠ করেন রাজু কান্তি চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন মোঃ তাজুল ইসলাম।

বিদায়ী জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নান বলেন, সিলেট বিচার অঙ্গনে যে পরিবেশের সৃষ্টি করেছি তা যেন বহাল থাকে। তিনি আরো বলেন, কেউ একা কাজ করতে পারে না। একজন কর্মচারী ও একজন ম্যাজিস্ট্রেটের ভাল বিচারের কারণে কাজে প্রসংশা পান ও প্রসংশিত হন সে বিষয়ে নজর রাখতে হবে। তিনি ম্যাজিস্ট্রেটদের সম্মনের সাথে দায়িত্ব পালনের জন্য অনুরোধ করেন।

বিদায়ী অতিথি চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নান ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসরাত জাহান-কে সম্মাননা ক্রেস্ট ও পুরস্কার প্রদান করেন প্রধান অতিথি। বিজ্ঞপ্তি

Facebook Comments

প্রতিদিন ডেস্ক::সিলেট জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবু ওবাইদা বলেছেন, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নান সিলেট বিচার বিভাগে যে কর্মদক্ষতা দেখিয়ে গেছেন তা সিলেটবাসী মনে রাখবে। তিনি বলেন, আজকের অনুষ্ঠানে উনারে যে মানপত্র দেয়া হলো সেখানে তার কর্মদক্ষতা আরো প্রতিফলিত হয়েছে। তিনি তার সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ জীবন কামনা করেন।
গতকাল ১৬ এপ্রিল সোমবার বিকালে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এর কনফোরেন্স হলে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সিলেটের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণের উদ্যোগে জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আবদুল হান্নান এর জেলা জজ পদে পদোন্নতি ও বদলী এবং জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ইসরাত জাহানের বদলী উপলক্ষে আয়োজিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

সিলেট জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নেজাতর বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আতিকুল হায়দার এর সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিদায়ী ও সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আবদুল হান্নান ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ইসরাত জাহান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ খায়রুল আমিন, কাকঁন দে, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, শারমীন খানম নীলা, সুলেখা দে, লায়লা মেহের বানু, ফারজানা শাকিলা সুমু চৌধুরী। লেনিন পোদ্দারের স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে সূচিত অনুষ্ঠানে অফিস সহায়কদের পক্ষে আলজাফ হোসেন, প্রসেস সার্ভারদের পক্ষে হারুনুর রশিদ রাসেল, সহকারী মোঃ জাকির হোসেন, বেঞ্চ সহকারীদের পক্ষে রইজুল ইসলাম, তপু দে, স্টেনো গ্রাফাদের পক্ষে দিপংকর পাল, মোঃ আনোয়ারুল হক, নাজির জজ কোর্ট মোঃ কামাল উদ্দিন চৌধুরী, সকল কর্মচারীর পক্ষে মোঃ নিজাম উদ্দীন বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথি মোঃ আবু ওবাইদা-কে মৌসুমী আক্তার, বিদায়ী অতিথি কাজী আবদুল হান্নান-কে নিজাম উদ্দিন, ইসরাত জাহান-কে তপু দে ও বিশেষ অতিথিবৃন্দকে ঝুমা রাণী পাল, বাগ্মী রাণী পাল, শুক্লা রাণী শর্মা, আয়েশা বেগম, রুজিনা বেগম, সুহেল আহমদ, শহিদুল ইসলাম, আব্দুল্লাহ আল মাসুম ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে নেন। অনুষ্ঠানে মানপত্র পাঠ করেন রাজু কান্তি চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন মোঃ তাজুল ইসলাম।

বিদায়ী জেলা চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নান বলেন, সিলেট বিচার অঙ্গনে যে পরিবেশের সৃষ্টি করেছি তা যেন বহাল থাকে। তিনি আরো বলেন, কেউ একা কাজ করতে পারে না। একজন কর্মচারী ও একজন ম্যাজিস্ট্রেটের ভাল বিচারের কারণে কাজে প্রসংশা পান ও প্রসংশিত হন সে বিষয়ে নজর রাখতে হবে। তিনি ম্যাজিস্ট্রেটদের সম্মনের সাথে দায়িত্ব পালনের জন্য অনুরোধ করেন।

বিদায়ী অতিথি চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আব্দুল হান্নান ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসরাত জাহান-কে সম্মাননা ক্রেস্ট ও পুরস্কার প্রদান করেন প্রধান অতিথি। বিজ্ঞপ্তি

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর