আজঃ ৫ই পৌষ ১৪২৫ - ১৯শে ডিসেম্বর ২০১৮ - সন্ধ্যা ৬:৪৩

সাদা কাগজে সাক্ষর দিবেন না আইনমন্ত্রী

Published: ফেব্রু ১৮, ২০১৮ - ৬:১৭ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক:: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির গণস্বাক্ষর কর্মসূচির সমালোচনা করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। বিএনপি সাদা কাগজে সই নিচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেছেন, ‘আমি যতদূর জানি, সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেওয়া হচ্ছে। গণস্বাক্ষরের নামে তারা কার সম্পত্তি লিখে নেয় তা আপনারা বুঝে দেখেন। কেউ সাদা কাগজে সই দিবেন না।’

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘রাজনীতিতে দুর্বৃত্তায়ন এবং দুর্বৃত্ত ও দুর্নীতিমুক্ত রাজনীতি’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এ সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক উপ-কমিটি।

রায়ের অনুলিপি প্রদানে ছলচাতুরির আশ্রয় নেওয়া হচ্ছে এমন অভিযোগ সম্পর্কেও কথা বলেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘রায়ের কপি দেবেন আদালত। প্রতিটি মামলায় দুটি পক্ষ থাকে। রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষ। কিন্তু রায়ের কপি দেয়ার ক্ষেত্রে কোনো পক্ষ নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই রায়ের পাতার সংখ্যা ৬৩২। দীর্ঘ ৫০ বছরের অভিজ্ঞতার আলোকে আমি বলতে পারি, রায়ের কপি পেতে হলে রায়টা কত বড় তার ওপর নির্ভর করে। রায় লিখতে যে সময়টুকু প্রয়োজন তার জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। সরকারের এখানে কোনো হাত নেই।’

আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক উপকমিটির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সাবেক বিচারপতি সৈয়দ আমিরুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, লেখক ও কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন প্রমুখ।

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক:: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির গণস্বাক্ষর কর্মসূচির সমালোচনা করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। বিএনপি সাদা কাগজে সই নিচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেছেন, ‘আমি যতদূর জানি, সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেওয়া হচ্ছে। গণস্বাক্ষরের নামে তারা কার সম্পত্তি লিখে নেয় তা আপনারা বুঝে দেখেন। কেউ সাদা কাগজে সই দিবেন না।’

রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘রাজনীতিতে দুর্বৃত্তায়ন এবং দুর্বৃত্ত ও দুর্নীতিমুক্ত রাজনীতি’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এ সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক উপ-কমিটি।

রায়ের অনুলিপি প্রদানে ছলচাতুরির আশ্রয় নেওয়া হচ্ছে এমন অভিযোগ সম্পর্কেও কথা বলেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘রায়ের কপি দেবেন আদালত। প্রতিটি মামলায় দুটি পক্ষ থাকে। রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষ। কিন্তু রায়ের কপি দেয়ার ক্ষেত্রে কোনো পক্ষ নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই রায়ের পাতার সংখ্যা ৬৩২। দীর্ঘ ৫০ বছরের অভিজ্ঞতার আলোকে আমি বলতে পারি, রায়ের কপি পেতে হলে রায়টা কত বড় তার ওপর নির্ভর করে। রায় লিখতে যে সময়টুকু প্রয়োজন তার জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। সরকারের এখানে কোনো হাত নেই।’

আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক উপকমিটির চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন সাবেক বিচারপতি সৈয়দ আমিরুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, লেখক ও কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন প্রমুখ।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর