আজঃ ২৯শে কার্তিক ১৪২৫ - ১৩ই নভেম্বর ২০১৮ - রাত ১১:০৬

সভা চলছে, ধুপ করে পড়ল সাপ

Published: অক্টো ১৫, ২০১৮ - ২:০৯ অপরাহ্ণ

প্রতিদিন ডেস্ক :: ব্যাংকের ভেতরে চলছিল কর্মীদের সভা। হঠাৎ সিলিং থেকে নিচে পড়ে একটি পাইথন। সবাই গোল হয়ে দাঁড়িয়ে আলোচনায় মগ্ন। হঠাৎ করে সিলিং থেকে ভারী কিছু এসে পড়ল সবার ওপর। সবাই সরে যেতে দেখতে পেলেন, মেঝেতে পড়েছে বড় আকারের একটা পাইথন। গত শুক্রবার অপ্রত্যাশিত এমনই এক ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ চীনের ন্যানিং শহরে।

দেড় মিটার লম্বা ও পাঁচ কেজি ওজনের সাপটি অপ্রত্যাশিত ভাবেই গুয়ানজি ঝুয়াং ব্যাংকের শিন চেং শাখার ভেতর ঢুকেছিল।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, সাপটি যখন সিলিং থেকে নিচে পড়ে, তখন ব্যাংকের কর্মকর্তারা দাঁড়িয়ে কথা বলছিলেন। সাপটি এক নারী কর্মকর্তার গা ছুঁয়ে নিচে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে সবাই ভয়ে চিৎকার করে ওঠেন এবং দিগ্‌বিদিক ছুটে যান।

প্রথমে কিছুটা ভারসাম্যহীন অবস্থায় ছিল সাপটি। প্রথমে কিছুটা ভারসাম্যহীন অবস্থায় থাকলেও পরে দ্রুত অন্য একটি কক্ষে গিয়ে সোফার নিচে লুকিয়ে পড়ে এটি। ব্যাংকের কর্মীরা জরুরি নিরাপত্তা সেন্টারে ফোন দেন। সেখান থেকে সাপুড়ে এসে সাপটি উদ্ধার করে সাদা একটি প্লাস্টিকের ব্যাগে ভরে নিয়ে যান।

সাপটি অবশ্য বিষধর ছিল না। এটাকে এই অঞ্চলের বন্য প্রাণী রেসকিউ রিসার্চ সেন্টারে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সাপটি কীভাবে সিলিং থেকে পড়ল, কীভাবে ব্যাংকটিতে ঢুকল, তা রহস্যময়। বন্য প্রাণী রক্ষাকারী কর্মকর্তারা বলছেন, হতে পারে পাইথনটিকে কাছাকাছি কেউ লালন–পালন করত। ব্যাংকের ছাদে চলে যাওয়ার আগে হয়তো এটি খাবার খুঁজতে বের হয়েছিল।

মজার ব্যাপার হচ্ছে, গত বছরও এমন ধরনের ঘটনা ঘটেছিল এই ব্যাংকে। ওই সময়ও অপ্রত্যাশিত ভাবে সাপ পাওয়া গিয়েছিল।

ব্যাংকটি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলেও এ বিষয়ে তেমন কিছু বলেনি।

Facebook Comments

প্রতিদিন ডেস্ক :: ব্যাংকের ভেতরে চলছিল কর্মীদের সভা। হঠাৎ সিলিং থেকে নিচে পড়ে একটি পাইথন। সবাই গোল হয়ে দাঁড়িয়ে আলোচনায় মগ্ন। হঠাৎ করে সিলিং থেকে ভারী কিছু এসে পড়ল সবার ওপর। সবাই সরে যেতে দেখতে পেলেন, মেঝেতে পড়েছে বড় আকারের একটা পাইথন। গত শুক্রবার অপ্রত্যাশিত এমনই এক ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ চীনের ন্যানিং শহরে।

দেড় মিটার লম্বা ও পাঁচ কেজি ওজনের সাপটি অপ্রত্যাশিত ভাবেই গুয়ানজি ঝুয়াং ব্যাংকের শিন চেং শাখার ভেতর ঢুকেছিল।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, সাপটি যখন সিলিং থেকে নিচে পড়ে, তখন ব্যাংকের কর্মকর্তারা দাঁড়িয়ে কথা বলছিলেন। সাপটি এক নারী কর্মকর্তার গা ছুঁয়ে নিচে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে সবাই ভয়ে চিৎকার করে ওঠেন এবং দিগ্‌বিদিক ছুটে যান।

প্রথমে কিছুটা ভারসাম্যহীন অবস্থায় ছিল সাপটি। প্রথমে কিছুটা ভারসাম্যহীন অবস্থায় থাকলেও পরে দ্রুত অন্য একটি কক্ষে গিয়ে সোফার নিচে লুকিয়ে পড়ে এটি। ব্যাংকের কর্মীরা জরুরি নিরাপত্তা সেন্টারে ফোন দেন। সেখান থেকে সাপুড়ে এসে সাপটি উদ্ধার করে সাদা একটি প্লাস্টিকের ব্যাগে ভরে নিয়ে যান।

সাপটি অবশ্য বিষধর ছিল না। এটাকে এই অঞ্চলের বন্য প্রাণী রেসকিউ রিসার্চ সেন্টারে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সাপটি কীভাবে সিলিং থেকে পড়ল, কীভাবে ব্যাংকটিতে ঢুকল, তা রহস্যময়। বন্য প্রাণী রক্ষাকারী কর্মকর্তারা বলছেন, হতে পারে পাইথনটিকে কাছাকাছি কেউ লালন–পালন করত। ব্যাংকের ছাদে চলে যাওয়ার আগে হয়তো এটি খাবার খুঁজতে বের হয়েছিল।

মজার ব্যাপার হচ্ছে, গত বছরও এমন ধরনের ঘটনা ঘটেছিল এই ব্যাংকে। ওই সময়ও অপ্রত্যাশিত ভাবে সাপ পাওয়া গিয়েছিল।

ব্যাংকটি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলেও এ বিষয়ে তেমন কিছু বলেনি।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর