আজঃ ১১ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - দুপুর ১:৪৯

সবই অনুমান থেকে বলেছি: অর্থমন্ত্রী

Published: সেপ্টে ০৬, ২০১৮ - ৯:৫৮ অপরাহ্ণ

প্রতিদিন ডেস্ক :: আগামী ২৭ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত যে তথ্য দিয়েছিলেন, সেটি অনুমাননির্ভর ছিল বলে জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে আসন্ন নির্বাচনকালীন সরকারে তার থাকার সম্ভাবনা আছে বলেও জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে গ্রামীণ ব্যাংকের ২০১৭ সালের লভ্যাংশের চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, ভোটের তারিখ বা নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বুধবার যেসব কথা বলেছেন, ‘সেগুলো সবই অনুমান থেকে বলেছি।’

তিনি বলেন, কবে ভোট হবে তা নির্ধারণ সম্পূর্ণভাবে নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ার। নির্বাচন কমিশন ভোটের তারিখ ঘোষণা করবে। আর নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

অর্থমন্ত্রী গত বুধবার বলেছিলেন, আগামী সংসদ নির্বাচন ২৭ ডিসেম্বর হতে পারে। নির্বাচনের তারিখ বলার পর বৃহস্পতিবার এ নিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে. এম. নুরুল হুদা, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মন্তব্য করেছেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, অর্থমন্ত্রী নির্বাচনের তারিখ উল্লেখ করে ঠিক করেননি। তার ভুল হয়েছে। আর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন, নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার কাজ মন্ত্রীর নয়।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনকালীন সরকারে তিনি হয়তো থাকবেন। তবে সেটি চূড়ান্ত করবেন প্রধানমন্ত্রী। তবে তিনি আগামীতে আর নির্বাচন করছেন না বলে জানান। অর্থমন্ত্রী বলেন, তার ভাই এম এ মোমেন নির্বাচন করবেন। তবে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী মনোনয়ন বোর্ড এটি চূড়ান্ত করবে। অর্থমন্ত্রী আশা করেন, তার আসনে মনোনয়ন বোর্ড তার ভাইকে মনোনীত করবে।

সম্প্রতি কিছু রাজনৈতিক দল আগামী সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কি-না তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে, সাংবাদিকদের এমন বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে মুহিত বলেন, আওয়ামী লীগ নির্বাচন নিয়ে যেসব সংস্কার করেছে, তাতে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন না হওয়ার কোনো কারণ নেই। ২০০৮ সালের নির্বাচনে সব দল অংশ নিয়েছে। সেখানে নিরপেক্ষতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন ছিল না। এর পর ২০১৪ সালের নির্বাচনে একটি বড় দল অংশ নেয়নি, সেটি অন্য বিষয়। তবে ওই নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি সে কথা কেউ বলতে পারবে না। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের অধীনে সব নির্বাচনই সুষ্ঠু হয়েছে।

Facebook Comments

প্রতিদিন ডেস্ক :: আগামী ২৭ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত যে তথ্য দিয়েছিলেন, সেটি অনুমাননির্ভর ছিল বলে জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে আসন্ন নির্বাচনকালীন সরকারে তার থাকার সম্ভাবনা আছে বলেও জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে গ্রামীণ ব্যাংকের ২০১৭ সালের লভ্যাংশের চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, ভোটের তারিখ বা নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বুধবার যেসব কথা বলেছেন, ‘সেগুলো সবই অনুমান থেকে বলেছি।’

তিনি বলেন, কবে ভোট হবে তা নির্ধারণ সম্পূর্ণভাবে নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ার। নির্বাচন কমিশন ভোটের তারিখ ঘোষণা করবে। আর নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

অর্থমন্ত্রী গত বুধবার বলেছিলেন, আগামী সংসদ নির্বাচন ২৭ ডিসেম্বর হতে পারে। নির্বাচনের তারিখ বলার পর বৃহস্পতিবার এ নিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে. এম. নুরুল হুদা, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মন্তব্য করেছেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, অর্থমন্ত্রী নির্বাচনের তারিখ উল্লেখ করে ঠিক করেননি। তার ভুল হয়েছে। আর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন, নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার কাজ মন্ত্রীর নয়।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনকালীন সরকারে তিনি হয়তো থাকবেন। তবে সেটি চূড়ান্ত করবেন প্রধানমন্ত্রী। তবে তিনি আগামীতে আর নির্বাচন করছেন না বলে জানান। অর্থমন্ত্রী বলেন, তার ভাই এম এ মোমেন নির্বাচন করবেন। তবে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী মনোনয়ন বোর্ড এটি চূড়ান্ত করবে। অর্থমন্ত্রী আশা করেন, তার আসনে মনোনয়ন বোর্ড তার ভাইকে মনোনীত করবে।

সম্প্রতি কিছু রাজনৈতিক দল আগামী সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কি-না তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে, সাংবাদিকদের এমন বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে মুহিত বলেন, আওয়ামী লীগ নির্বাচন নিয়ে যেসব সংস্কার করেছে, তাতে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন না হওয়ার কোনো কারণ নেই। ২০০৮ সালের নির্বাচনে সব দল অংশ নিয়েছে। সেখানে নিরপেক্ষতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন ছিল না। এর পর ২০১৪ সালের নির্বাচনে একটি বড় দল অংশ নেয়নি, সেটি অন্য বিষয়। তবে ওই নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি সে কথা কেউ বলতে পারবে না। এ ছাড়া আওয়ামী লীগের অধীনে সব নির্বাচনই সুষ্ঠু হয়েছে।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর