আজঃ ৮ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - সকাল ৭:৩৯

লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য থাকবে আগের মতোই

Published: এপ্রি ১৬, ২০১৮ - ৮:১০ পূর্বাহ্ণ

লন্ডন প্রতিনিধি::বাংলাদেশের ইতিহাস জানার জন্য লন্ডনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপন করা হয়। এটি দেখার জন্য প্রায় প্রতিদিনই জড়ো হন দর্শনার্থীরা। তবে একটি কুচক্রী মহল ভাস্কর্যটি সরিয়ে নেওয়ার জন্য লন্ডন টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিলে অভিযোগ করে। অবশেষে সেই অভিযোগের নিষ্পত্তি হয়েছে। অর্থাৎ ভাস্কর্যটি যেভাবে ছিল সেভাবেই থাকবে বলে জানিয়েছেন এর নির্মাতা আফসার খান সাদেক।

জানাযায় লন্ডন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও বিয়ানীবাজার উপজেলার শেওলা ইউনিয়নের চারাবই গ্রামের সন্তান আফসার খান সাদেক ২০১৪ সালের প্রথম দিকে যুক্তরাজ্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে একটি আবেদন করেন। আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, যুক্তরাজ্যের মতো বাংলাদেশেও অনেক গুণী ব্যক্তি রয়েছেন। বাংলাদেশেও অনেক বড়মাপের এক নেতা রয়েছেন। যার জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি পেত না। তার নাম শেখ মুজিবুর রহমান। তার ভাস্কর্য সিডনি স্ট্রিটে স্থাপন হলে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা দর্শনার্থীরা বাংলাদেশের ইতিহাস জানতে পারবে।

আফসার খান সাদেক জানান, গত বছরের ১৫ মার্চ তাকে নোটিশ পাঠায় টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিল। তিনি বিষয়টি বাংলাদেশ হাইকমিশন ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বোন শেখ রেহানাকে অবগত করেন। সবার পরামর্শে নোটিশের বিরুদ্ধে প্লানিং কমিশনে আপিল করা হয়। ২৮ নভেম্বর প্লানিং কমিশনের কর্তাব্যক্তিরা ভাস্কর্য এলাকা পরিদর্শন করে এ বছরের ১১ জানুয়ারি এটি যে অবস্থায় স্থাপিত হয়েছে সেভাবেই থাকার সিদ্ধান্ত দেয়।

Facebook Comments

লন্ডন প্রতিনিধি::বাংলাদেশের ইতিহাস জানার জন্য লন্ডনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপন করা হয়। এটি দেখার জন্য প্রায় প্রতিদিনই জড়ো হন দর্শনার্থীরা। তবে একটি কুচক্রী মহল ভাস্কর্যটি সরিয়ে নেওয়ার জন্য লন্ডন টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিলে অভিযোগ করে। অবশেষে সেই অভিযোগের নিষ্পত্তি হয়েছে। অর্থাৎ ভাস্কর্যটি যেভাবে ছিল সেভাবেই থাকবে বলে জানিয়েছেন এর নির্মাতা আফসার খান সাদেক।

জানাযায় লন্ডন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও বিয়ানীবাজার উপজেলার শেওলা ইউনিয়নের চারাবই গ্রামের সন্তান আফসার খান সাদেক ২০১৪ সালের প্রথম দিকে যুক্তরাজ্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে একটি আবেদন করেন। আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, যুক্তরাজ্যের মতো বাংলাদেশেও অনেক গুণী ব্যক্তি রয়েছেন। বাংলাদেশেও অনেক বড়মাপের এক নেতা রয়েছেন। যার জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি পেত না। তার নাম শেখ মুজিবুর রহমান। তার ভাস্কর্য সিডনি স্ট্রিটে স্থাপন হলে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা দর্শনার্থীরা বাংলাদেশের ইতিহাস জানতে পারবে।

আফসার খান সাদেক জানান, গত বছরের ১৫ মার্চ তাকে নোটিশ পাঠায় টাওয়ার হ্যামলেট কাউন্সিল। তিনি বিষয়টি বাংলাদেশ হাইকমিশন ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বোন শেখ রেহানাকে অবগত করেন। সবার পরামর্শে নোটিশের বিরুদ্ধে প্লানিং কমিশনে আপিল করা হয়। ২৮ নভেম্বর প্লানিং কমিশনের কর্তাব্যক্তিরা ভাস্কর্য এলাকা পরিদর্শন করে এ বছরের ১১ জানুয়ারি এটি যে অবস্থায় স্থাপিত হয়েছে সেভাবেই থাকার সিদ্ধান্ত দেয়।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর