মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৬:০১ অপরাহ্ন

শ্রীরামপুর মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা মস্তাক আহমদ আর নেই:জানাজায় হাজারো জনতার ঢল

শ্রীরামপুর মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওলানা মস্তাক আহমদ আর নেই:জানাজায় হাজারো জনতার ঢল

গোলাপগঞ্জ সংবাদদাতা:: সিলেটের শ্রীরামপুর মাদ্রাসার মুহাদ্দিস ও বিয়ানীবাজার উপজেলার চারাবই মহিলা মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম ও বর্তমান শায়খুল হাদিস, সারপিং জামে মসজিদের সাবেক ইমাম ও খতিব আলহাজ্ব মাওলানা মস্তাক আহমদ ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি…… রাজিউন)।

গতকাল শুক্রবার ভোর ৫ টা ৪৫ মিনিটের সময় সিলেটের একটি বেসরকারী হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। তিনি দীর্ঘ দিন থেকে বার্ধক্যজনিত রোগে ভোগছিলেন । তিনি স্ত্রী, ৮ সন্তান সহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

আলহাজ্ব মাওলানা মস্তাক আহমদ বিয়ানীবাজার উপজেলার চারাবই গ্রামের মৃত তজম্মুল আলীর তৃতীয় পুত্র। বর্তমানে তিনি সিলেটের মোগলাবাজার থানার কুচাই ইউনিয়নের সারপিং গ্রামে স্বপরিবারে স্থানীয়ভাবে বসবাস করে আসছেন। তিনি দীর্ঘ প্রায় ৩৮ বৎসর যাবত শ্রীরামপুর মাদ্রাসায় নাজিমে তালিমাত ও শায়খুল হাদিস হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এ দিকে মরহুমের জানাজার নামাজ গতকাল শুক্রবার দুপুর আড়াইটার সময় কুচাই স্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। এসময় হাজারো ছাত্র শিক্ষক সহ সর্ব সাধারণের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। এসময় দ্বীনের এই খাদেমকে শেষ বিদায় জানাতে এসে ছাত্র শিক্ষক সহ সবার মধ্যে হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। দীর্ঘদিন যাবত এই এলাকায় মরহুম আলহাজ মাওলানা মস্তাক আহমদ থাকার ফলে একই পরিবারের পিতা-পুত্র, নাতি-পুতি সবাই মরহুমের ছাত্র হয়ে যান।

তিনি ওই এলাকায় বড় হুজুর, সারপিং এর হুজুর এবং নাজিম সাব হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। নিহতের লাশ প্রথমে তার জন্মস্থান চারাবইয়ে দাফনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও স্থানীয় এলাকাবাসী তাদের প্রিয় মানুষটিকে কিছুতেই তাদের এলাকা থেকে দিতে রাজি হননি। এক পর্যায়ে স্থানীয় পঞ্চায়েত কুচাই সারপিং কবর স্থানে দাফণ সম্পন্ন করেন। জানাজার নামাজে ইমামতি করেন মরহুমের দ্বিতীয় ছেলে মাওলানা কাওছার হোসেইন। জানাজায় সামাজিক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার কয়েক সহস্রাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন






© All rights reserved © 2019 sylhetprotidin24