আজঃ ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ - ১০ই ডিসেম্বর ২০১৮ - রাত ২:৫১

মৌলভীবাজারে গরুর গোশতে ফুটে উঠল আল্লাহ ও রাসূলের নাম!

Published: নভে ১৫, ২০১৮ - ১২:১৬ পূর্বাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন :: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে কুলখানীর শিরনীর ২ টুকরো গোশতে মিললো আল্লাহ ও রাসুল (সা.)’র নাম। বুধবার সকালে পৌর এলাকার চন্ডিপুর গ্রামের আনিছ মিয়ার বাড়ীতে ঘটনাটি ঘটে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ভিড় করেন গোশতের টুকরো দু’টি দেখার জন্য। জানা যায়, কমলগঞ্জ থানার সামনের চায়ের দোকানদার মো. আনিছ মিয়া গত ১০ নভেম্বর ইন্তেকাল করেন।

তার মৃত্যুতে বুধবার নিজ বাড়ীতে পারিবারিকভাবে আয়োজন করা হয় কুলকানীর।শিরনীর জন্য স্থানীয় একটি বাজার থেকে ক্রয় করা হয় গরু। যথারীতি গরু জবাই করে শিরনীর জন্য গোশত প্রস্তুত করা হয়। ৩ নং ড্যাগের শিরনী প্রস্তত করার সময় বাবুর্চি বাচ্চু মিয়ার নজরে পড়ে আল্লাহ লিখা এক টকুরো গোশত। কিছু সময় পর ৪ নং ড্যাগেও অনুরুপভাবে মোহাম্মদুর রাসুলল্লাহ (সা.) লেখা আরেক টুকরো গোশত নজরে পড়ে তার।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা গোশতের টুকরো গুলো দেখার জন্য ওই বাড়ীতে ভিড় করতে থাকেন।বাড়ীর লোকজন গোশতের টুকরোগুলো যত্ন করে ফ্রিজের মধ্যে রেখেছেন। স্থানীয় কমলগঞ্জ থানা জামে মসজিদের ঈমাম মাওলানা মো. আলাউদ্দিন বলেন, তিনি নিজ চোখে লিখাগুলো দেখেছেন। এটি একটি অলৌকিক ঘটনা। স্থানীয়ভাবে জানা যায়, মৃত আনিছ মিয়া একজন ধার্মিক মানুষ ছিলেন।

সিলেট প্রতিদিন/১৫নভেম্বর ২০১৮/জেকে

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন :: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে কুলখানীর শিরনীর ২ টুকরো গোশতে মিললো আল্লাহ ও রাসুল (সা.)’র নাম। বুধবার সকালে পৌর এলাকার চন্ডিপুর গ্রামের আনিছ মিয়ার বাড়ীতে ঘটনাটি ঘটে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ভিড় করেন গোশতের টুকরো দু’টি দেখার জন্য। জানা যায়, কমলগঞ্জ থানার সামনের চায়ের দোকানদার মো. আনিছ মিয়া গত ১০ নভেম্বর ইন্তেকাল করেন।

তার মৃত্যুতে বুধবার নিজ বাড়ীতে পারিবারিকভাবে আয়োজন করা হয় কুলকানীর।শিরনীর জন্য স্থানীয় একটি বাজার থেকে ক্রয় করা হয় গরু। যথারীতি গরু জবাই করে শিরনীর জন্য গোশত প্রস্তুত করা হয়। ৩ নং ড্যাগের শিরনী প্রস্তত করার সময় বাবুর্চি বাচ্চু মিয়ার নজরে পড়ে আল্লাহ লিখা এক টকুরো গোশত। কিছু সময় পর ৪ নং ড্যাগেও অনুরুপভাবে মোহাম্মদুর রাসুলল্লাহ (সা.) লেখা আরেক টুকরো গোশত নজরে পড়ে তার।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা গোশতের টুকরো গুলো দেখার জন্য ওই বাড়ীতে ভিড় করতে থাকেন।বাড়ীর লোকজন গোশতের টুকরোগুলো যত্ন করে ফ্রিজের মধ্যে রেখেছেন। স্থানীয় কমলগঞ্জ থানা জামে মসজিদের ঈমাম মাওলানা মো. আলাউদ্দিন বলেন, তিনি নিজ চোখে লিখাগুলো দেখেছেন। এটি একটি অলৌকিক ঘটনা। স্থানীয়ভাবে জানা যায়, মৃত আনিছ মিয়া একজন ধার্মিক মানুষ ছিলেন।

সিলেট প্রতিদিন/১৫নভেম্বর ২০১৮/জেকে

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর