আজঃ ১লা কার্তিক ১৪২৫ - ১৬ই অক্টোবর ২০১৮ - দুপুর ১২:৫৯

বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় দারুল উলূম দেওবন্দের অবদান অপরিসীম: মুফতি খুরশেদ আনোয়ার

Published: ফেব্রু ২১, ২০১৮ - ৭:৫৬ অপরাহ্ণ

কানাইঘাট প্রতিনিধি:: আন্তর্জাতিক ইসলামী ব্যক্তিত্ব দারুল উলূম দেওবন্দের বিশিষ্ট মুহাদ্দিস আল্লামা মুফতি খুরশেদ আনোয়ার বলেছেন, বিশ্ব ব্যাপী আজ তাগুতি শক্তিগুলো ইসলাম ও মুসলমান ধ্বংসে আধা জল খেয়ে ময়দানে বিরাজমান। এজন্য মুসলমানরা ঈমানী শক্তিতে বলীয়ান হয়ে কাজ করতে হবে। বিদেশী মেহমান বলেন, বাতিলরা বিভিন্ন ছদ্ম নামে সমাজে ধূমজাল সৃষ্টির জন্য তাদের মিশন চালিয়ে যাচ্ছে। ওদের কালো থাবা থেকে আমাদেরকে হেফাজত রাখতে হবে।

মেহমান বলেন, বিভিন্ন দেশে কাদিয়ানী, লা-মাযহাবী আর আহলে হাদিস জামায়াত শুধুমাত্র মুসলমানদের মধ্যে ফিতনা সৃষ্টির জন্য গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তিনি বলেন, এসকল ফিতনা থেকে বিশ্ব মুসলিমকে রক্ষা করার জন্য একমাত্র দেওবন্দী উলামায়ে কেরাম নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় দারুল উলূম দেওবন্দের অবদান অনস্বীকার্য।

তিনি শায়খুল ইসলাম আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরী রহ. এর স্মৃতি চারণ করে বলেন, তিনি হলেন দারুল উলূম দেওবন্দের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। তার পদাঙ্ক অনুসরণে আমাদের জীবনে কল্যাণ নিহিত হয়েছে।

আজ শায়খুল ইসলাম আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরী রহ. এর স্মৃতি বিজড়িত জামেয়া ইসলামিয়া দারুল উলূম দারুল হাদিস কানাইঘাট মাদ্রাসার বার্ষিক ইসলামী মহা সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

জামেয়ার মহা-পরিচালক শায়খুল হাদিস আল্লামা মুহাম্মদ বিন ইদ্রিস শায়খে লক্ষীপুরীর সভাপতিত্বে ও মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাওঃ ক্বারি হারুনুর রশীদ চতুলীর পরিচালনায় মহা সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, শায়খুল হাদিস আল্লামা আব্দুল মতিন ঢাকা, আল্লামা আলিমুদ্দীন শায়খে দুর্লভপুরী, আল্লামা ইয়াহিয়া মাহমুদ, আল্লামা মাহমুদুল হাসান রায়গড়ী, আল্লামা শামসুদ্দিন দুর্লভপুরী, মাওঃ হাসান জামিল, মাওঃ রেজাউল করিম আবরার, মাওঃ হাফিজ হারুনুর রশীদ, মাওঃ আব্দুল খারিলক চাক্তা, মাওঃ আহমদ আল চিল্লা, মাওঃ বুরহান উদ্দীন রেঙ্গা, মাওঃ মুবশ্বির আলী, মাওঃ শিহাব উদ্দিন, মাওঃ মুখলিসুর রহমান রাজাগঞ্জী।

মহা সম্মেলনে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, জকিগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান রাজনীতিবিদ মাসুক আহমদ, বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব আব্দুল মোমিন চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আব্দুল কাহির চৌধুরী, সিলেট প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি এম.এ হান্নান, সাবেক পৌর মেয়র লুৎফুর রহমান, সাঁতবাক ইউপি চেয়ারম্যান মস্তাক আহমদ পলাশ, বড়চতুল ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন চতুলী, থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ, জেনারেল কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মাওঃ ইসমাইল দুর্লভপুরী। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম রানা সহ কানাইঘাট পৌরসভার সকল কাউন্সিলরবৃন্দ।

তিলাওয়াত করেন, বিশ্বজয়ী হাফিজ জাকারিয়া। মহা সম্মেলনে লক্ষাধিক মুসলিম জনতার উপস্থিতিতে জামেয়ার ফাজিল ৬০ জন আলেম ও হাফেজদেরকে দস্তারে ফজিলত প্রদান করা হয়। দস্তারে ফজিলত প্রদান করেন, জামেয়ার মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস আল্লামা মুহাম্মদ বিন ইদ্রিস শায়খে লক্ষীপুরী ও শায়খুল হাদিস আল্লামা আলিমুদ্দীন দুর্লভপুরী।

Facebook Comments

কানাইঘাট প্রতিনিধি:: আন্তর্জাতিক ইসলামী ব্যক্তিত্ব দারুল উলূম দেওবন্দের বিশিষ্ট মুহাদ্দিস আল্লামা মুফতি খুরশেদ আনোয়ার বলেছেন, বিশ্ব ব্যাপী আজ তাগুতি শক্তিগুলো ইসলাম ও মুসলমান ধ্বংসে আধা জল খেয়ে ময়দানে বিরাজমান। এজন্য মুসলমানরা ঈমানী শক্তিতে বলীয়ান হয়ে কাজ করতে হবে। বিদেশী মেহমান বলেন, বাতিলরা বিভিন্ন ছদ্ম নামে সমাজে ধূমজাল সৃষ্টির জন্য তাদের মিশন চালিয়ে যাচ্ছে। ওদের কালো থাবা থেকে আমাদেরকে হেফাজত রাখতে হবে।

মেহমান বলেন, বিভিন্ন দেশে কাদিয়ানী, লা-মাযহাবী আর আহলে হাদিস জামায়াত শুধুমাত্র মুসলমানদের মধ্যে ফিতনা সৃষ্টির জন্য গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তিনি বলেন, এসকল ফিতনা থেকে বিশ্ব মুসলিমকে রক্ষা করার জন্য একমাত্র দেওবন্দী উলামায়ে কেরাম নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় দারুল উলূম দেওবন্দের অবদান অনস্বীকার্য।

তিনি শায়খুল ইসলাম আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরী রহ. এর স্মৃতি চারণ করে বলেন, তিনি হলেন দারুল উলূম দেওবন্দের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। তার পদাঙ্ক অনুসরণে আমাদের জীবনে কল্যাণ নিহিত হয়েছে।

আজ শায়খুল ইসলাম আল্লামা মুশাহিদ বায়মপুরী রহ. এর স্মৃতি বিজড়িত জামেয়া ইসলামিয়া দারুল উলূম দারুল হাদিস কানাইঘাট মাদ্রাসার বার্ষিক ইসলামী মহা সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

জামেয়ার মহা-পরিচালক শায়খুল হাদিস আল্লামা মুহাম্মদ বিন ইদ্রিস শায়খে লক্ষীপুরীর সভাপতিত্বে ও মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাওঃ ক্বারি হারুনুর রশীদ চতুলীর পরিচালনায় মহা সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, শায়খুল হাদিস আল্লামা আব্দুল মতিন ঢাকা, আল্লামা আলিমুদ্দীন শায়খে দুর্লভপুরী, আল্লামা ইয়াহিয়া মাহমুদ, আল্লামা মাহমুদুল হাসান রায়গড়ী, আল্লামা শামসুদ্দিন দুর্লভপুরী, মাওঃ হাসান জামিল, মাওঃ রেজাউল করিম আবরার, মাওঃ হাফিজ হারুনুর রশীদ, মাওঃ আব্দুল খারিলক চাক্তা, মাওঃ আহমদ আল চিল্লা, মাওঃ বুরহান উদ্দীন রেঙ্গা, মাওঃ মুবশ্বির আলী, মাওঃ শিহাব উদ্দিন, মাওঃ মুখলিসুর রহমান রাজাগঞ্জী।

মহা সম্মেলনে বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, জকিগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান রাজনীতিবিদ মাসুক আহমদ, বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব আব্দুল মোমিন চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আব্দুল কাহির চৌধুরী, সিলেট প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি এম.এ হান্নান, সাবেক পৌর মেয়র লুৎফুর রহমান, সাঁতবাক ইউপি চেয়ারম্যান মস্তাক আহমদ পলাশ, বড়চতুল ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন চতুলী, থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ, জেনারেল কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মাওঃ ইসমাইল দুর্লভপুরী। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম রানা সহ কানাইঘাট পৌরসভার সকল কাউন্সিলরবৃন্দ।

তিলাওয়াত করেন, বিশ্বজয়ী হাফিজ জাকারিয়া। মহা সম্মেলনে লক্ষাধিক মুসলিম জনতার উপস্থিতিতে জামেয়ার ফাজিল ৬০ জন আলেম ও হাফেজদেরকে দস্তারে ফজিলত প্রদান করা হয়। দস্তারে ফজিলত প্রদান করেন, জামেয়ার মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস আল্লামা মুহাম্মদ বিন ইদ্রিস শায়খে লক্ষীপুরী ও শায়খুল হাদিস আল্লামা আলিমুদ্দীন দুর্লভপুরী।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর