আজঃ ২রা পৌষ ১৪২৫ - ১৬ই ডিসেম্বর ২০১৮ - সকাল ৮:৩৯

নেপালকে হারাতে প্রত্যয়ী মারিয়ারা

Published: আগ ১২, ২০১৮ - ১২:১৩ অপরাহ্ণ

ক্রীড়া ডেস্ক :: লক্ষ্য শিরোপা অক্ষুণ্ণ রাখা। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে শুরুটাও সেভাবে করেছে মারিয়া মান্ডাবাহিনী। নবাগত পাকিস্তানকে ১৪-০ গোলে স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছে লাল-সবুজের মেয়েরা। বি-গ্রুপে এবার তাদের লক্ষ্য নেপালকে হারানো। এই ম্যাচে জিতলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ। তাই কঠোর অনুশীলন করছেন কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।

বড় জয়ে আনন্দের আতিশয্যে ভেসে যাননি মারিয়ারা। বরং নতুন প্রতিজ্ঞা নিয়েই অনুশীলন করছেন। শনিবার চাংলিমিথান স্টেডিয়ামে দু’ঘণ্টার অনুশীলন করেন তারা। দ্বিতীয় ম্যাচ নিয়ে দলের প্রত্যেকেই মনোযোগী। দলকে উজ্জীবিত করতে এবং গতি আনার চেষ্টা করছেন ছোটন ও পল স্মলি। যাতে নেপালে ভালো খেলেই জিততে পারেন মারিয়ারা।

দলের মিডফিল্ডার নিলুফার ইয়াসমিন বলেন, ‘নেপালের বিপক্ষে পরবর্তী ম্যাচে আমাদের সেরাটা দিয়েই চেষ্টা করব। পাকিস্তানের চেয়ে অনেকগুণ ভালো দল নেপাল। কিন্তু যদি আমরা প্রথম ম্যাচের মতো খেলি, তাহলে নেপালের বিপক্ষে নিশ্চিত জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারব।’

নেপালের বর্তমান দলটি সম্পর্কে ধারণা খুব বেশি নেই ছোটন ও স্মলির। তাই কাল বিকেল সাড়ে ৪টায় পাকিস্তানের বিপক্ষে নেপালের ম্যাচটি দেখতে পুরো দলকে নিয়েই হাজির হন তিনি। ম্যাচটি পর্যবেক্ষণ করেন এবং নেপালের দুর্বলতাগুলো খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন।

Facebook Comments

ক্রীড়া ডেস্ক :: লক্ষ্য শিরোপা অক্ষুণ্ণ রাখা। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে শুরুটাও সেভাবে করেছে মারিয়া মান্ডাবাহিনী। নবাগত পাকিস্তানকে ১৪-০ গোলে স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছে লাল-সবুজের মেয়েরা। বি-গ্রুপে এবার তাদের লক্ষ্য নেপালকে হারানো। এই ম্যাচে জিতলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে খেলবে বাংলাদেশ। তাই কঠোর অনুশীলন করছেন কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।

বড় জয়ে আনন্দের আতিশয্যে ভেসে যাননি মারিয়ারা। বরং নতুন প্রতিজ্ঞা নিয়েই অনুশীলন করছেন। শনিবার চাংলিমিথান স্টেডিয়ামে দু’ঘণ্টার অনুশীলন করেন তারা। দ্বিতীয় ম্যাচ নিয়ে দলের প্রত্যেকেই মনোযোগী। দলকে উজ্জীবিত করতে এবং গতি আনার চেষ্টা করছেন ছোটন ও পল স্মলি। যাতে নেপালে ভালো খেলেই জিততে পারেন মারিয়ারা।

দলের মিডফিল্ডার নিলুফার ইয়াসমিন বলেন, ‘নেপালের বিপক্ষে পরবর্তী ম্যাচে আমাদের সেরাটা দিয়েই চেষ্টা করব। পাকিস্তানের চেয়ে অনেকগুণ ভালো দল নেপাল। কিন্তু যদি আমরা প্রথম ম্যাচের মতো খেলি, তাহলে নেপালের বিপক্ষে নিশ্চিত জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারব।’

নেপালের বর্তমান দলটি সম্পর্কে ধারণা খুব বেশি নেই ছোটন ও স্মলির। তাই কাল বিকেল সাড়ে ৪টায় পাকিস্তানের বিপক্ষে নেপালের ম্যাচটি দেখতে পুরো দলকে নিয়েই হাজির হন তিনি। ম্যাচটি পর্যবেক্ষণ করেন এবং নেপালের দুর্বলতাগুলো খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর