বুধবার, ২৩ জানুয়ারী ২০১৯, ১২:০২ পূর্বাহ্ন

নেত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আমি মনোনয়ন প্রত্যাহার করবো : শাকিল খান

নেত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আমি মনোনয়ন প্রত্যাহার করবো : শাকিল খান

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক:: বাগেরহাট-৩ (রামপাল-মোংলা) আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র কিনেছিলেন চিত্রনায়ক শাকিল খান। তবে শেষ পর্যন্ত তা প্রত্যাহার করে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

এই উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মঙ্গলবার দুপুরে মনোনয়নপত্র কেনেন খুলনা সিটি করপোরেশনের (কেসিসি) নবনির্বাচিত মেয়র তালুকদার আবদুল খালেকের স্ত্রী হাবিবুন নাহার। তার আগে রোববার স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র কেনেন শাকিল খান।

বাগেরহাট-৩ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন তালুকদার আবদুল খালেক। খুলনা সিটি করপোরেশনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার জন্য তিনি সংসদ সদস্যপদ থেকে অব্যাহতি দেন। এরপর স্পিকার নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিলে গত ১০ এপ্রিল আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। এরপর নির্বাচন কমিশন এই আসনে উপনির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণা করে।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ২৪ মে মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ সময়, ২৭ মে বাছাই এবং ৩ জুন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ধার্য করা হয়েছে। আর ভোট গ্রহণ হবে ২৬ জুন।

তফসিল ঘোষণার পর গত সোমবার সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সর্বসম্মতিক্রমে বাগেরহাট-৩ (রামপাল-মোংলা) আসনের উপনির্বাচনে হাবিবুন নাহারকে দলের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

এদিকে বুধবার দুপুরে চিত্রনায়ক শাকিল খান মোবাইল ফোনে সাংবাদিকদের জানান, তিনি উপনির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন।

শাকিল খান বলেন, “গত রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ডেকেছিলেন। তিনি বলেছেন, ‘শাকিল তোমার ভবিষ্যৎ ভালো, তুমি দলের জন্য কাজ করে যাও, আমি আগামী দিনে তোমাকে নিয়ে চিন্তা করছি’।”

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী ডিসেম্বরে যেহেতু জাতীয় নির্বাচন, আর নেত্রী যেহেতু বলেছেন, তাই দল ও নেত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আমি আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবিবুন নাহারকে সমর্থন করেছি। আগামী ২৪ মে আমি উপনির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাহার করবো।’

এদিকে বুধবার পর্যন্ত এ দুই প্রার্থী ছাড়া অপর কোনো প্রার্থী এ আসন থেকে মনোনয়নপত্র ক্রয় করেননি বলে জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে। সে হিসেবে অন্য কেউ মনোনয়নপত্র না কিনলে স্বামী তালুকদার আবদুল খালেকের ছেড়ে দেওয়া আসনে স্ত্রী হাবিবুন নাহারের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, রামপাল-মোংলা এই দুই উপজেলা নিয়ে বাগেরহাট-৩ আসন। দুই উপজেলায় ১৬টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে মোট দুই লাখ ২৬ হাজার ২৪৯ ভোটার রয়েছেন। পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১৩ হাজার ২৩৮, নারী ভোটার ১ লাখ ১৩ হাজার ১১ জন।

নিউজটি শেয়ার করুন





© All rights reserved © 2019 sylhetprotidin24