আজঃ ২৯শে কার্তিক ১৪২৫ - ১৩ই নভেম্বর ২০১৮ - সকাল ১১:৫২

নির্বাচন নিয়ে কোন ফাউল খেলা খেলবেন না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

Published: সেপ্টে ০৪, ২০১৮ - ৭:১৫ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন :: স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি বলেছেন, আগামী নির্বাচন নিয়ে কোন ফাউল খেলা খেলবেন না। যদি কোন ফাউল খেলা খেলেন তবে খেলার মাঠ থেকে লাল কার্ড দেখিয়ে রেফারি বের করে দেবে। নির্ধারিত সময়ে শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হবে। সে নির্বাচনে লড়াই করব এবং আমরা জিতব।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালে নির্বাচন শুরু করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু জ্বালাওপুড়াও শুরু করলো খালেদা জিয়ার দল। নির্বিচারে পুলিশ হত্যা করলো, মানুষকে হত্যা করলো। ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন না হলে দেশে মার্শাল ‘ল’ থাকতো।

বিএনপিকে হুশিয়ারী দিয়ে তিনি আরো বলেন, মেসি ও নেইমার গোল মিস করতে পারে, কিন্তু শেখ হাসিনা এবারও গোল মিস করবেন না।

তিনি মঙ্গলবার বেলা দুইটায় মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় নবনির্মিত ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন পরবর্তী স্থানীয় আওয়ামীলীগ আয়োজিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রী জনসভায় উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বিগত নির্বাচনে শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসায় আপনারা উন্নয়ন পাচ্ছেন। এখন ভোটের মাধ্যমে তা ফেরত দেওয়ার পালা। গত দশ বছরে শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অনেক দিয়েছেন। শোককে বুকে ধারণ করে একাত্তরের ঘাতক দালালদের বিচার করেছেন। বিগত কোন সরকারই এদের বিচার করে নাই। এত কিছুর পরও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছেন। যার ফলে দু’মুঠো ভাত খেয়ে মানুষ সুখে আছে। খাদ্যে প্রবৃদ্ধি বেড়েছে। মায়ের মমতা নিয়ে শেখ হাসিনা উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। জনগণের দোরগড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিতে নতুন নতুন কমিনিউটি ক্লিনিক হচ্ছে। সে ধারাবাহিকতায় আরো ৭ হাজার ডাক্তার নিয়োগ হবে। জুড়ীতেও কমিউনিটি ক্লিনিক হবে।

তিনি বলেন, আমার মেয়াদকালীন সময়ে জুড়ী ও বড়লেখা হাসপাতালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধন হল।’

এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, ‘এই মাসেই আপনাদের হাসপাতালে একটি অ্যাম্বুলেন্স দেয়া হবে। পাশাপাশি এ হাসপাতালে চিকিৎসক ও নতুন সরঞ্জাম দ্রুত সময়ে পৌঁছে যাবে। তাছাড়া মৌলভীবাজার জেলায় একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপন করা হবে। তবে কিছু দাবি এখন পুরণ করব না। নির্বাচনে জিতলে পুরণ করা হবে। তাই আপনারা হাত তুলে ওয়াদা করেন। এই সরকারকে আবারও ক্ষমতায় দেখতে চান।

জাতীয় সংসদের হুইপ ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. শাহাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং জুড়ী উপজেলা আ’লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, যুবলীগ নেতা রিংকু রঞ্জন দাস ও শেখরুল ইসলামের যৌথ সঞ্চালনায় জুড়ী হাসপাতাল প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মতিন, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বাবুল কুমার সাহা, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ব্রি. জেনারেল এম.এ মুহিত, মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলাম, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নেছার আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মিছবাউর রহমান, মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র ফজলুর রহমান, বড়লেখা উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান গুলশানা আরা মিলি, কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আসম কামরুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত জেলা সিভিল সার্জন ডা. বিনেন্দু ভৌমিক, বড়লেখা পৌরমেয়র ইমাম মো. কামরান চৌধুরী, জুড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবয়ক বদরুল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশীদ সাজু, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মহিউদ্দিন আহমদ।

এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি, বিকেলে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় সম্প্রসারিত নবনির্মিত হাসপাতাল ভবনের উদ্বোধন করেন।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আগামী নির্বাচনকে ইঙ্গিত করে বিএনপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মেসি ও নেইমার গোল মিস করতে পারে, কিন্তু শেখ হাসিনা গোল মিস করবে না।

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন :: স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি বলেছেন, আগামী নির্বাচন নিয়ে কোন ফাউল খেলা খেলবেন না। যদি কোন ফাউল খেলা খেলেন তবে খেলার মাঠ থেকে লাল কার্ড দেখিয়ে রেফারি বের করে দেবে। নির্ধারিত সময়ে শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচন হবে। সে নির্বাচনে লড়াই করব এবং আমরা জিতব।

তিনি বলেন, ২০১৪ সালে নির্বাচন শুরু করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু জ্বালাওপুড়াও শুরু করলো খালেদা জিয়ার দল। নির্বিচারে পুলিশ হত্যা করলো, মানুষকে হত্যা করলো। ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন না হলে দেশে মার্শাল ‘ল’ থাকতো।

বিএনপিকে হুশিয়ারী দিয়ে তিনি আরো বলেন, মেসি ও নেইমার গোল মিস করতে পারে, কিন্তু শেখ হাসিনা এবারও গোল মিস করবেন না।

তিনি মঙ্গলবার বেলা দুইটায় মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় নবনির্মিত ৫০ শয্যা বিশিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন পরবর্তী স্থানীয় আওয়ামীলীগ আয়োজিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রী জনসভায় উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বিগত নির্বাচনে শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসায় আপনারা উন্নয়ন পাচ্ছেন। এখন ভোটের মাধ্যমে তা ফেরত দেওয়ার পালা। গত দশ বছরে শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অনেক দিয়েছেন। শোককে বুকে ধারণ করে একাত্তরের ঘাতক দালালদের বিচার করেছেন। বিগত কোন সরকারই এদের বিচার করে নাই। এত কিছুর পরও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছেন। যার ফলে দু’মুঠো ভাত খেয়ে মানুষ সুখে আছে। খাদ্যে প্রবৃদ্ধি বেড়েছে। মায়ের মমতা নিয়ে শেখ হাসিনা উন্নয়ন করে যাচ্ছেন। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। জনগণের দোরগড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিতে নতুন নতুন কমিনিউটি ক্লিনিক হচ্ছে। সে ধারাবাহিকতায় আরো ৭ হাজার ডাক্তার নিয়োগ হবে। জুড়ীতেও কমিউনিটি ক্লিনিক হবে।

তিনি বলেন, আমার মেয়াদকালীন সময়ে জুড়ী ও বড়লেখা হাসপাতালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধন হল।’

এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, ‘এই মাসেই আপনাদের হাসপাতালে একটি অ্যাম্বুলেন্স দেয়া হবে। পাশাপাশি এ হাসপাতালে চিকিৎসক ও নতুন সরঞ্জাম দ্রুত সময়ে পৌঁছে যাবে। তাছাড়া মৌলভীবাজার জেলায় একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপন করা হবে। তবে কিছু দাবি এখন পুরণ করব না। নির্বাচনে জিতলে পুরণ করা হবে। তাই আপনারা হাত তুলে ওয়াদা করেন। এই সরকারকে আবারও ক্ষমতায় দেখতে চান।

জাতীয় সংসদের হুইপ ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. শাহাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং জুড়ী উপজেলা আ’লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, যুবলীগ নেতা রিংকু রঞ্জন দাস ও শেখরুল ইসলামের যৌথ সঞ্চালনায় জুড়ী হাসপাতাল প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মতিন, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বাবুল কুমার সাহা, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ব্রি. জেনারেল এম.এ মুহিত, মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলাম, জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নেছার আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মিছবাউর রহমান, মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র ফজলুর রহমান, বড়লেখা উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান গুলশানা আরা মিলি, কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আসম কামরুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত জেলা সিভিল সার্জন ডা. বিনেন্দু ভৌমিক, বড়লেখা পৌরমেয়র ইমাম মো. কামরান চৌধুরী, জুড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবয়ক বদরুল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মামুনুর রশীদ সাজু, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মহিউদ্দিন আহমদ।

এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম এমপি, বিকেলে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় সম্প্রসারিত নবনির্মিত হাসপাতাল ভবনের উদ্বোধন করেন।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আগামী নির্বাচনকে ইঙ্গিত করে বিএনপির উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মেসি ও নেইমার গোল মিস করতে পারে, কিন্তু শেখ হাসিনা গোল মিস করবে না।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর