আজঃ ৩রা ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ - ১৮ই আগস্ট ২০১৮ ইং - দুপুর ১:৩২

নগরবাসীর প্রতি সিলেট সিটি কর্পোরেশনের আহ্বান

Published: ফেব্রু ১৩, ২০১৮ - ৫:৩৬ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় অবৈধ স্থাপনা স্ব- উদ্বোগে সরিয়ে নেয়া, জনগনের চলাচলের রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে ব্যবসা পরিচালনা না করা, যত্রতত্রভাবে সাটানো ব্যানার ফেস্টুন স্ব-উদ্যোগে অপসারণ, বকেয়া হোল্ডিং কর, ব্যবসা লাইসেন্স, পানীয় জলের ট্যারিফ জনস্বার্থে অবিলম্বে পরিশোধ করার নির্দেশনা দিয়েছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন। নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইন মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

গত রবিবার সিসিকের প্রধান নির্বাহী এনামুল হাবিব স্বাক্ষরিত এক পত্রে জানানো হয়, মহানগরীর জনসাধারণের সুষ্ঠু চলাচলের স্বার্থে এবং নগরীকে যানজটমুক্ত করতে ইতোমধ্যে যারা অবৈধভাবে ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে ব্যবসা পরিচালনা করছেন তাদেরকে অবিলম্বে ফুটপাত ও রাস্তা থেকে তাদের ব্যবসা সামগ্রী সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ প্রদান করা হয়। এছাড়া নগরীর ছড়া, নালা, খাল, ড্রেন অবৈধ দখল স্ব-উদ্যোগে অপসারণ করতে হবে। প্রতিদিন রাত ৮টা থেকে ১১টার মধ্যে মহানগরীর সকল দোকান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, বাজার, হোটেল রেষ্টুরেন্ট এবং বাসাবাড়ীর বাসিন্দাদের যাবতীয় ময়লা আবর্জনা নির্দিষ্ট স্থানে ফেলতে হবে। কোন অবস্থাতেই নির্দিষ্ট সময়ের পর অর্থাৎ দিনের বেলায় যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলা যাবে না। যদি কেউ এ নিয়ম ভঙ্গ করেন, তাহলে, তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে সিসিক।

অন্যদিকে, সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকায় বিনা অনুমতিতে যত্রতত্রভাবে সাটানো ব্যানার ফেস্টুন স্ব উদ্যোগে নগরীর সৌন্দর্য্য রক্ষার্থে অপসারণের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়।

সিসিকের যেসব নাগরিক এখনো বকেয়া হোল্ডিং কর, ব্যবসা লাইসেন্স, পানীয় জলের ট্যারিফ পরিষোধ করেননি তা অবিলম্বে পরিশোধ করার আহবান জানান প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবিব।

এছাড়া যারা পানির লাইনের সাথে অবৈধভাবে মটর সংযোগ করেছেন কিংবা অবৈধভাবে একাধিক সংযোগ নিয়ে থাকেন তাদেরকে অনতিবিলম্বে পানির লাইন থেকে মটর সংযোগ স্ব-উদ্যোগে বিচ্ছিন্ন করার অনুরোধ জানান তিনি। কারও বাসা কিংবা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানির অবৈধ সংযোগ থাকে তাহলে তা অনতিবিলম্বে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রমে বৈধ করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ অনুরোধ জানান। আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে সিসিক কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার থেকে সিলেট মহানগরীর ড্রেন, ছড়া, নালা ইত্যাদি পরিস্কারের জন্য সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে এক পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু করা হবে। উক্ত অভিযানে মহানগরীর সম্মানিত নাগরিকবৃন্দকে সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

Facebook Comments

আরো খবর

রোগীর জীবন বাঁচাতে রক্ত দিলেন এনামুল... সিলেট প্রতিদিন :: সিলেটে একজন বয়োবৃদ্ধ রোগীর জীবন বাঁচাতে নিজে...
প্রতিবন্ধী মানুষের কল্যাণে কাজ করাই পৃথিবীর সবচেয়ে... সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: সিলেটের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (প্র...
ডেকে নিয়ে মেয়েশিশুকে ধর্ষণ... সিলেট প্রতিদিন :: সিলেট নগরীর ইলেকট্রিক সাপ্লাই এলাকায় সাড়ে ছয়...
সিলেটে সিটিতে পরাজয়ের পরও যে বিজয় দেখছে আ,লীগ... সিলেট প্রতিদিন প্রতিবেদক:: সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় ...
উন্নয়নের জন্য নৌকায় ভোট দিয়ে আ’লীগকে বিজয়ী করুন: শ... সিলেট প্রতিদিন :: সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাব...

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় অবৈধ স্থাপনা স্ব- উদ্বোগে সরিয়ে নেয়া, জনগনের চলাচলের রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে ব্যবসা পরিচালনা না করা, যত্রতত্রভাবে সাটানো ব্যানার ফেস্টুন স্ব-উদ্যোগে অপসারণ, বকেয়া হোল্ডিং কর, ব্যবসা লাইসেন্স, পানীয় জলের ট্যারিফ জনস্বার্থে অবিলম্বে পরিশোধ করার নির্দেশনা দিয়েছে সিলেট সিটি কর্পোরেশন। নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইন মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

গত রবিবার সিসিকের প্রধান নির্বাহী এনামুল হাবিব স্বাক্ষরিত এক পত্রে জানানো হয়, মহানগরীর জনসাধারণের সুষ্ঠু চলাচলের স্বার্থে এবং নগরীকে যানজটমুক্ত করতে ইতোমধ্যে যারা অবৈধভাবে ফুটপাত ও রাস্তা দখল করে ব্যবসা পরিচালনা করছেন তাদেরকে অবিলম্বে ফুটপাত ও রাস্তা থেকে তাদের ব্যবসা সামগ্রী সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ প্রদান করা হয়। এছাড়া নগরীর ছড়া, নালা, খাল, ড্রেন অবৈধ দখল স্ব-উদ্যোগে অপসারণ করতে হবে। প্রতিদিন রাত ৮টা থেকে ১১টার মধ্যে মহানগরীর সকল দোকান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, বাজার, হোটেল রেষ্টুরেন্ট এবং বাসাবাড়ীর বাসিন্দাদের যাবতীয় ময়লা আবর্জনা নির্দিষ্ট স্থানে ফেলতে হবে। কোন অবস্থাতেই নির্দিষ্ট সময়ের পর অর্থাৎ দিনের বেলায় যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলা যাবে না। যদি কেউ এ নিয়ম ভঙ্গ করেন, তাহলে, তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে সিসিক।

অন্যদিকে, সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকায় বিনা অনুমতিতে যত্রতত্রভাবে সাটানো ব্যানার ফেস্টুন স্ব উদ্যোগে নগরীর সৌন্দর্য্য রক্ষার্থে অপসারণের জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়।

সিসিকের যেসব নাগরিক এখনো বকেয়া হোল্ডিং কর, ব্যবসা লাইসেন্স, পানীয় জলের ট্যারিফ পরিষোধ করেননি তা অবিলম্বে পরিশোধ করার আহবান জানান প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবিব।

এছাড়া যারা পানির লাইনের সাথে অবৈধভাবে মটর সংযোগ করেছেন কিংবা অবৈধভাবে একাধিক সংযোগ নিয়ে থাকেন তাদেরকে অনতিবিলম্বে পানির লাইন থেকে মটর সংযোগ স্ব-উদ্যোগে বিচ্ছিন্ন করার অনুরোধ জানান তিনি। কারও বাসা কিংবা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানির অবৈধ সংযোগ থাকে তাহলে তা অনতিবিলম্বে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রমে বৈধ করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ অনুরোধ জানান। আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে সিসিক কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার থেকে সিলেট মহানগরীর ড্রেন, ছড়া, নালা ইত্যাদি পরিস্কারের জন্য সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে এক পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু করা হবে। উক্ত অভিযানে মহানগরীর সম্মানিত নাগরিকবৃন্দকে সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

Facebook Comments

আরো খবর

রোগীর জীবন বাঁচাতে রক্ত দিলেন এনামুল... সিলেট প্রতিদিন :: সিলেটে একজন বয়োবৃদ্ধ রোগীর জীবন বাঁচাতে নিজে...
প্রতিবন্ধী মানুষের কল্যাণে কাজ করাই পৃথিবীর সবচেয়ে... সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: সিলেটের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (প্র...
ডেকে নিয়ে মেয়েশিশুকে ধর্ষণ... সিলেট প্রতিদিন :: সিলেট নগরীর ইলেকট্রিক সাপ্লাই এলাকায় সাড়ে ছয়...
সিলেটে সিটিতে পরাজয়ের পরও যে বিজয় দেখছে আ,লীগ... সিলেট প্রতিদিন প্রতিবেদক:: সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় ...
উন্নয়নের জন্য নৌকায় ভোট দিয়ে আ’লীগকে বিজয়ী করুন: শ... সিলেট প্রতিদিন :: সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাব...