আজঃ ১লা অগ্রহায়ণ ১৪২৫ - ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ - রাত ১২:৪৪

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত: লন্ডনে তারেককে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান

Published: এপ্রি ২৪, ২০১৮ - ৯:০১ অপরাহ্ণ

প্রবাস ডেস্ক :: হিন্দুদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার জন্য দলের প্রধান হিসাবে তারেক রহমান ও যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেককে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে লন্ডনভিত্তিক একটি সংগঠন।

সোমবার লন্ডনে সংবাদ সম্মেলন করে ক্যাম্পেইন ফর দ্য প্রটেকশন অব রিলিজিয়াস মাইনরিটিজ ইন বাংলাদেশের (সিপিআরএমবি) সভাপতি পুষ্পিতা গুপ্ত ও সম্পাদক অজিত সাহা এই আহ্বান জানান।

তাদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুক্তরাজ্য সফরের সময়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের জনসভাস্থলে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে এম এ মালেকের নেতৃত্বে বিএনপি নেতাকর্মীরা ‘হরে কৃষ্ণ হরে রাম, শেখ হাসিনার বাপের নাম’ বলে স্লোগান দেয়।

সেকুলার বাংলাদেশ মুভমেন্ট ইউকের মুখপাত্র পুষ্পিতা গুপ্ত বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জনসভার বাইরে বিএনপির বিক্ষোভের একটি ভিডিও তাদের কাছে রয়েছে। এতে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা শ্লোগান শুনে তারা বিস্মিত হয়ে গেছেন। লন্ডনের ব্যস্ততম এলাকা ওয়েস্ট এন্ডে “হরে কৃষ্ণ হরে রাম” বলে সবসময়ই হিন্দু ধর্মাবলম্বী শ্বেতাঙ্গদের কীর্তন গেয়ে চলাফেরা করতে দেখা যায়।

“এদের কেউ বিষয়টি বুঝতে পারলে এবং ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকলে বিষয়টি অন্যভাবে মোড় নিতে পারতো।”

লিখিত বক্তব্যে অজিত সাহা বলেন, যুক্তরাজ্য বিএনপির এমন হিন্দু ধর্ম অবমাননাকারী বিদ্বেষ ও ঘৃণাপূর্ণ স্লোগান বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক পরিস্থিতিকে উসকে দিতে পারে। সকল রাজনৈতিক দল ও দলীয় নেতাকর্মীদের স্পষ্ট অসাম্প্রদায়িক অবস্থান বাংলাদেশে বৈষম্যহীন সমাজ বিনির্মানে ও সাম্প্রদয়িক সহাবস্থানের ভিতকে আরও সুদৃঢ় করবে।

বিএনপি নেতৃবৃন্দ ক্ষমা না চাইলে তারা যুক্তরাজ্যে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে লিখিত অভিযোগ করবেন বলেও সংবাদ সম্মেলনে তারা জানান।

যুক্তরাজ্যে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ালে কঠোর শাস্তির বিধান রয়েছে। যে কোনো ধর্মাবলম্বীরাই আইনের এই সুরক্ষা পান।

Facebook Comments

প্রবাস ডেস্ক :: হিন্দুদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার জন্য দলের প্রধান হিসাবে তারেক রহমান ও যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেককে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে লন্ডনভিত্তিক একটি সংগঠন।

সোমবার লন্ডনে সংবাদ সম্মেলন করে ক্যাম্পেইন ফর দ্য প্রটেকশন অব রিলিজিয়াস মাইনরিটিজ ইন বাংলাদেশের (সিপিআরএমবি) সভাপতি পুষ্পিতা গুপ্ত ও সম্পাদক অজিত সাহা এই আহ্বান জানান।

তাদের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুক্তরাজ্য সফরের সময়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের জনসভাস্থলে প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে এম এ মালেকের নেতৃত্বে বিএনপি নেতাকর্মীরা ‘হরে কৃষ্ণ হরে রাম, শেখ হাসিনার বাপের নাম’ বলে স্লোগান দেয়।

সেকুলার বাংলাদেশ মুভমেন্ট ইউকের মুখপাত্র পুষ্পিতা গুপ্ত বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জনসভার বাইরে বিএনপির বিক্ষোভের একটি ভিডিও তাদের কাছে রয়েছে। এতে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা শ্লোগান শুনে তারা বিস্মিত হয়ে গেছেন। লন্ডনের ব্যস্ততম এলাকা ওয়েস্ট এন্ডে “হরে কৃষ্ণ হরে রাম” বলে সবসময়ই হিন্দু ধর্মাবলম্বী শ্বেতাঙ্গদের কীর্তন গেয়ে চলাফেরা করতে দেখা যায়।

“এদের কেউ বিষয়টি বুঝতে পারলে এবং ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকলে বিষয়টি অন্যভাবে মোড় নিতে পারতো।”

লিখিত বক্তব্যে অজিত সাহা বলেন, যুক্তরাজ্য বিএনপির এমন হিন্দু ধর্ম অবমাননাকারী বিদ্বেষ ও ঘৃণাপূর্ণ স্লোগান বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক পরিস্থিতিকে উসকে দিতে পারে। সকল রাজনৈতিক দল ও দলীয় নেতাকর্মীদের স্পষ্ট অসাম্প্রদায়িক অবস্থান বাংলাদেশে বৈষম্যহীন সমাজ বিনির্মানে ও সাম্প্রদয়িক সহাবস্থানের ভিতকে আরও সুদৃঢ় করবে।

বিএনপি নেতৃবৃন্দ ক্ষমা না চাইলে তারা যুক্তরাজ্যে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে লিখিত অভিযোগ করবেন বলেও সংবাদ সম্মেলনে তারা জানান।

যুক্তরাজ্যে ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ালে কঠোর শাস্তির বিধান রয়েছে। যে কোনো ধর্মাবলম্বীরাই আইনের এই সুরক্ষা পান।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর