আজঃ ৫ই কার্তিক ১৪২৫ - ২০শে অক্টোবর ২০১৮ - বিকাল ৩:৪৬

তরঙ্গ নিলাম: সরকারের আয় ৫ হাজার ২৬৮ কোটি টাকার বেশি

Published: ফেব্রু ১৩, ২০১৮ - ৫:৪৪ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: ফোর জি তরঙ্গের নিলাম এবং তরঙ্গের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার সুবিধা বিক্রি করে পাঁচ হাজার ২৬৮ কোটি ৫১ লাখ টাকা পাচ্ছে সরকার।

মঙ্গলবার ঢাকা ক্লাবে ফোর জি তরঙ্গের নিলাম আনুষ্ঠানিকতা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ।

তিনি জানান, দুই অপারেটর বাংলালিংক ও গ্রামীণফোন নিলামে অংশ নিয়ে মোট তিন হাজার ৮৪৪ কোটি টাকায় ফোর জি তরঙ্গ বরাদ্দ নিয়েছে।

এছাড়া গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক ও রবির কাছ থেকে টু জি ও থ্রি জি সেবার জন্য বরাদ্দ করা তরঙ্গে প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা দিয়ে (যাতে ওই তরঙ্গ যে কোনো প্রযুক্তিতে ব্যবহার করা যায়) সরকার আরও ১ হাজার ৪৪৫ দশমিক ০৮ কোটি টাকা পেয়েছে বলেও জানান বিটিআরসি চেয়ারম্যান।

চারটি ব্লকে ১৮০০ মেগাহার্টজে এবং পাঁচটি ব্লকে ২১০০ মেগাহার্টজের নিলাম হয়। উভয় নিলামে অংশ নিয়ে বাংলালিংক এক হাজার ১১৯ কোটি টাকায় ২১০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ড এবং এক হাজার ৪৩৯ কোটি টাকায় ১৮০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডের মোট ১০.৬ মেগাহার্টজ তরঙ্গ কিনে নেয়।

অন্যদিকে শুধুমাত্র ১৮০০ মেগাহার্টজের নিলামে অংশ নেওয়া গ্রামীণফোন ১ হাজার ২৮৪ কোটি টাকায় ১৮০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডের ৫ মেগাহার্টজ তরঙ্গ কিনে নেয়।

ফোর জি তরঙ্গ নিলামে অংশ নিতে দেশের চার মোবাইল ফোন অপারেটর আবেদন করলেও শেষ পর্যন্ত নিলামে অংশ নেয় শুধু বাংলালিংক ও গ্রামীণফোন। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর রবি তাদের হাতে থাকা তরঙ্গ প্রযুক্তি নিরপেক্ষতায় রূপান্তর করে ফোর জি সেবা প্রদানের পরিকল্পনা করেছে।

তরঙ্গের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার সুবিধা পেতে আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করার সুযোগ রয়েছে। ফোর জি সেবায় আসতে চাইলে রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটককে ওই সময়ের মধ্যেই এ সুবিধা নিতে হবে।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান জানান, ফোর জি লাইসেন্স ও তরঙ্গ ব্যবহারের অনুমতিপত্র ২০ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে অপারেটরগুলোর কাছে হস্তান্তর করা হবে।

নিলাম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিটিআরসি চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ। এছাড়া বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও মোবাইল ফোন অপারেটর প্রতিনিধিরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: ফোর জি তরঙ্গের নিলাম এবং তরঙ্গের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার সুবিধা বিক্রি করে পাঁচ হাজার ২৬৮ কোটি ৫১ লাখ টাকা পাচ্ছে সরকার।

মঙ্গলবার ঢাকা ক্লাবে ফোর জি তরঙ্গের নিলাম আনুষ্ঠানিকতা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ।

তিনি জানান, দুই অপারেটর বাংলালিংক ও গ্রামীণফোন নিলামে অংশ নিয়ে মোট তিন হাজার ৮৪৪ কোটি টাকায় ফোর জি তরঙ্গ বরাদ্দ নিয়েছে।

এছাড়া গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক ও রবির কাছ থেকে টু জি ও থ্রি জি সেবার জন্য বরাদ্দ করা তরঙ্গে প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা দিয়ে (যাতে ওই তরঙ্গ যে কোনো প্রযুক্তিতে ব্যবহার করা যায়) সরকার আরও ১ হাজার ৪৪৫ দশমিক ০৮ কোটি টাকা পেয়েছে বলেও জানান বিটিআরসি চেয়ারম্যান।

চারটি ব্লকে ১৮০০ মেগাহার্টজে এবং পাঁচটি ব্লকে ২১০০ মেগাহার্টজের নিলাম হয়। উভয় নিলামে অংশ নিয়ে বাংলালিংক এক হাজার ১১৯ কোটি টাকায় ২১০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ড এবং এক হাজার ৪৩৯ কোটি টাকায় ১৮০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডের মোট ১০.৬ মেগাহার্টজ তরঙ্গ কিনে নেয়।

অন্যদিকে শুধুমাত্র ১৮০০ মেগাহার্টজের নিলামে অংশ নেওয়া গ্রামীণফোন ১ হাজার ২৮৪ কোটি টাকায় ১৮০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডের ৫ মেগাহার্টজ তরঙ্গ কিনে নেয়।

ফোর জি তরঙ্গ নিলামে অংশ নিতে দেশের চার মোবাইল ফোন অপারেটর আবেদন করলেও শেষ পর্যন্ত নিলামে অংশ নেয় শুধু বাংলালিংক ও গ্রামীণফোন। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর রবি তাদের হাতে থাকা তরঙ্গ প্রযুক্তি নিরপেক্ষতায় রূপান্তর করে ফোর জি সেবা প্রদানের পরিকল্পনা করেছে।

তরঙ্গের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার সুবিধা পেতে আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করার সুযোগ রয়েছে। ফোর জি সেবায় আসতে চাইলে রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটককে ওই সময়ের মধ্যেই এ সুবিধা নিতে হবে।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান জানান, ফোর জি লাইসেন্স ও তরঙ্গ ব্যবহারের অনুমতিপত্র ২০ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে অপারেটরগুলোর কাছে হস্তান্তর করা হবে।

নিলাম অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিটিআরসি চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ। এছাড়া বিটিআরসির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও মোবাইল ফোন অপারেটর প্রতিনিধিরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর