আজঃ ৫ই পৌষ ১৪২৫ - ১৯শে ডিসেম্বর ২০১৮ - সন্ধ্যা ৬:৪৬

ঢাকাদক্ষিণ এর কৃতিসন্তান সিলেট জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত

Published: অক্টো ০১, ২০১৮ - ১০:১৯ অপরাহ্ণ

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: গোলাপগঞ্জ উপজেলা স্কাউটের যুগ্ম সম্পাদক এবং কাব স্কাউট শাখার উডব্যাজধারী ব্যক্তিত্ব, বিষয় ভিত্তিক বাংলা ও শারীরিক শিক্ষা বিষয়ের প্রশিক্ষক ও লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নের মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ খসরু মিয়া এবছর সিলেট জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের কানিশাইল গ্রামের মোহাম্মদ চাঁন্দ মিয়ার ছেলে। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি দুই পুত্র সন্তানের জনক। তাঁর স্ত্রী ছুন্নাহ বেগম কানিশাইল চৌধুরী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা।

জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হওয়ার ইতিকথা জানতে চাইলে মো: খসরু মিয়া জানান, “আমি বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বরত মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৬০সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিষ্টার পর থেকে বিদ্যালয়টি অবকাঠমোগত উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত ছিল। আমি প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর ব্যক্তি উদ্যোগে প্রায় তিনলক্ষ টাকা ব্যয়ে বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর, গেইট ও খেলার মাঠ নির্মাণ, একটি ল্যাপটপ ও দুটি প্রিণ্টার সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়েছি। এছাড়া শিক্ষকবৃন্দের অনুদানে বিদ্যালয়ে সুন্দর একটি বাগান নির্মাণ করেছি। তিনি আরও জানান আমি মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে নিয়ে স্বপ্ন দেখি। যে স্বপ্ন আমাকে রাতে ঘুমাতে দেয় না। আমি চাই মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বাংলাদেশের মধ্যে একটি অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয়ে পরিণত করতে। আমার স্বপ্ন হচ্ছে আমার বিদ্যালয়। আমি এসএমসির সদস্য, অভিভাবক ও শিক্ষকবৃন্দের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর মফিজ উদ্দিন ভূইয়া জানান মোহাম্মদ খসরু মিয়া বিভিন্ন বিষয়ের দক্ষ প্রশিক্ষক। সে তাঁর সৃজনশীলতার দ্বারা মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে একটি মানসম্মত পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন। খসরু মিয়া একজন দক্ষ প্রধান শিক্ষক। তাঁর মতো প্রধান শিক্ষক দেশ ও জাতির সম্পদ।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ সরকার জানান খসরু মিয়া খুব দক্ষ একজন দক্ষ প্রধান শিক্ষক। তিনি মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে দৃষ্টিনন্দন একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রুপ নিয়েছেন। সে সিলেট জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হওয়ায় তাকে অভিনন্দন জানাই।

Facebook Comments

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: গোলাপগঞ্জ উপজেলা স্কাউটের যুগ্ম সম্পাদক এবং কাব স্কাউট শাখার উডব্যাজধারী ব্যক্তিত্ব, বিষয় ভিত্তিক বাংলা ও শারীরিক শিক্ষা বিষয়ের প্রশিক্ষক ও লক্ষণাবন্দ ইউনিয়নের মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ খসরু মিয়া এবছর সিলেট জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের কানিশাইল গ্রামের মোহাম্মদ চাঁন্দ মিয়ার ছেলে। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি দুই পুত্র সন্তানের জনক। তাঁর স্ত্রী ছুন্নাহ বেগম কানিশাইল চৌধুরী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা।

জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হওয়ার ইতিকথা জানতে চাইলে মো: খসরু মিয়া জানান, “আমি বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বরত মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৬০সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিষ্টার পর থেকে বিদ্যালয়টি অবকাঠমোগত উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত ছিল। আমি প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর ব্যক্তি উদ্যোগে প্রায় তিনলক্ষ টাকা ব্যয়ে বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর, গেইট ও খেলার মাঠ নির্মাণ, একটি ল্যাপটপ ও দুটি প্রিণ্টার সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়েছি। এছাড়া শিক্ষকবৃন্দের অনুদানে বিদ্যালয়ে সুন্দর একটি বাগান নির্মাণ করেছি। তিনি আরও জানান আমি মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে নিয়ে স্বপ্ন দেখি। যে স্বপ্ন আমাকে রাতে ঘুমাতে দেয় না। আমি চাই মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বাংলাদেশের মধ্যে একটি অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয়ে পরিণত করতে। আমার স্বপ্ন হচ্ছে আমার বিদ্যালয়। আমি এসএমসির সদস্য, অভিভাবক ও শিক্ষকবৃন্দের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর মফিজ উদ্দিন ভূইয়া জানান মোহাম্মদ খসরু মিয়া বিভিন্ন বিষয়ের দক্ষ প্রশিক্ষক। সে তাঁর সৃজনশীলতার দ্বারা মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে একটি মানসম্মত পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন। খসরু মিয়া একজন দক্ষ প্রধান শিক্ষক। তাঁর মতো প্রধান শিক্ষক দেশ ও জাতির সম্পদ।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আব্দুল হামিদ সরকার জানান খসরু মিয়া খুব দক্ষ একজন দক্ষ প্রধান শিক্ষক। তিনি মুকিতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে দৃষ্টিনন্দন একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রুপ নিয়েছেন। সে সিলেট জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হওয়ায় তাকে অভিনন্দন জানাই।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর