আজঃ ৮ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - সকাল ৭:৪২

‘জাফর ইকবালের উপর হামলা করে মুক্তবুদ্ধির চর্চা ঠেকানো যাবে না’

Published: মার্চ ০৫, ২০১৮ - ৮:৪৬ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: বরেণ্য লেখক, অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের উপর হামলার ঘটনায় নগরীতে প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ করেছে গণজাগরণ মঞ্চ, সিলেট।

সোমবার বিকেলে নগরীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন গান আবৃত্তি নাটকের মাধ্যমে মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদ মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার আহ্বান জানায়।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ফাঁকে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা। এসময় বক্তারা বলেন, অধ্যাপক জাফর ইকবালের উপর হামলা করে উগ্রবাদী গোষ্ঠি এদেশের মুক্তচিন্তা ও মুক্তবুদ্ধির চর্চার উপর হামলা করেছে। কিন্তু এভাবে হামলা করে মুক্তবুদ্ধির চর্চা ঠেকিয়ে রাখা যাবে না।

বক্তারা জঙ্গিবাদ নির্মূলে সরকারকে আরো আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, কেবল দুএকটি অভিযান চালিয়ে কিংবা দু’একজনকে শাস্তি দিয়েই জঙ্গিবাদ নির্মূল করা যাবে না। বরং এদের নেপথ্যের লোকদের খুঁজে বের করতে হবে। জঙ্গিগবাদের পৃষ্টপোষক ও মদদদাতাদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে। তা না করা গেলে এ ধরণের ঘটনা ঘটতেই থাকবে।

হেফাজতসহ বিভিন্ন মৌলবাদী গোষ্ঠির সাথে সরকারের সাম্প্রতিক ঘনিষ্ঠতায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তারা বলেন, সরকারের প্রশ্রয়ের কারণেই তারা দিন দিন বেপোরোয় হয়ে উঠছে। তারা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের একটি সুরক্ষিত এলাকায়ও পুলিশ প্রহারায় থাকা একজন শিক্ষকের উপর হামলা চালাচ্ছে। জঙ্গিদের মদদদাতাদের ব্যাপারে সরকার কঠোর না হলে জঙ্গিদের নির্মূল করা সম্ভব হবে না। জঙ্গিবাদ নির্মূলে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলারও আহ্বান জানান বক্তারা।

গণজাগরণ মঞ্চ সিলেটের মুখপাত্র দেবাশীষ দেবু’র সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ভবতোষ রায় বর্মন রানা, ওয়ার্কাস পার্টির জেলা সাধারণ সম্পাদক সিকন্দর আলী, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাবেক সভাপতি এডভোকেট মনির হেলাল, সভাপতি মিশফাক আহমেদ মিশু, বাসদ-সিলেটের সমন্বয়ক আবু জাফর, গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক আব্দুল করিম কীম, রজতকান্তি গুপ্ত, রাজীব রাসেল প্রমুখ।

প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা উপস্থাপন করে উদীচী সিলেট জেলা সংসদ, নগরনাট, মৃত্তিকায় মহাকাল, এমসি কলেজের নাট্য সংগঠন থিয়েটার মুরারীচাঁদ ও শাহাজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সংগঠন শিকড়। এছাড়া কবিতা আবৃত্তি করেন নাট্যকর্মী আবু বকর আল আমিন।

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক :: বরেণ্য লেখক, অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের উপর হামলার ঘটনায় নগরীতে প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ করেছে গণজাগরণ মঞ্চ, সিলেট।

সোমবার বিকেলে নগরীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন নাট্য ও সাংস্কৃতিক সংগঠন গান আবৃত্তি নাটকের মাধ্যমে মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদ মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার আহ্বান জানায়।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ফাঁকে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা। এসময় বক্তারা বলেন, অধ্যাপক জাফর ইকবালের উপর হামলা করে উগ্রবাদী গোষ্ঠি এদেশের মুক্তচিন্তা ও মুক্তবুদ্ধির চর্চার উপর হামলা করেছে। কিন্তু এভাবে হামলা করে মুক্তবুদ্ধির চর্চা ঠেকিয়ে রাখা যাবে না।

বক্তারা জঙ্গিবাদ নির্মূলে সরকারকে আরো আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, কেবল দুএকটি অভিযান চালিয়ে কিংবা দু’একজনকে শাস্তি দিয়েই জঙ্গিবাদ নির্মূল করা যাবে না। বরং এদের নেপথ্যের লোকদের খুঁজে বের করতে হবে। জঙ্গিগবাদের পৃষ্টপোষক ও মদদদাতাদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে। তা না করা গেলে এ ধরণের ঘটনা ঘটতেই থাকবে।

হেফাজতসহ বিভিন্ন মৌলবাদী গোষ্ঠির সাথে সরকারের সাম্প্রতিক ঘনিষ্ঠতায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বক্তারা বলেন, সরকারের প্রশ্রয়ের কারণেই তারা দিন দিন বেপোরোয় হয়ে উঠছে। তারা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের একটি সুরক্ষিত এলাকায়ও পুলিশ প্রহারায় থাকা একজন শিক্ষকের উপর হামলা চালাচ্ছে। জঙ্গিদের মদদদাতাদের ব্যাপারে সরকার কঠোর না হলে জঙ্গিদের নির্মূল করা সম্ভব হবে না। জঙ্গিবাদ নির্মূলে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলারও আহ্বান জানান বক্তারা।

গণজাগরণ মঞ্চ সিলেটের মুখপাত্র দেবাশীষ দেবু’র সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ভবতোষ রায় বর্মন রানা, ওয়ার্কাস পার্টির জেলা সাধারণ সম্পাদক সিকন্দর আলী, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাবেক সভাপতি এডভোকেট মনির হেলাল, সভাপতি মিশফাক আহমেদ মিশু, বাসদ-সিলেটের সমন্বয়ক আবু জাফর, গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক আব্দুল করিম কীম, রজতকান্তি গুপ্ত, রাজীব রাসেল প্রমুখ।

প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা উপস্থাপন করে উদীচী সিলেট জেলা সংসদ, নগরনাট, মৃত্তিকায় মহাকাল, এমসি কলেজের নাট্য সংগঠন থিয়েটার মুরারীচাঁদ ও শাহাজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সংগঠন শিকড়। এছাড়া কবিতা আবৃত্তি করেন নাট্যকর্মী আবু বকর আল আমিন।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর