আজঃ ১০ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - বিকাল ৪:০৯

গোলাপগঞ্জে বিএনপির প্রার্থী নার্জিস, বিদ্রোহী শাহিন

Published: সেপ্টে ০৬, ২০১৮ - ১১:১০ অপরাহ্ণ

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: সিলেটের গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে উপনির্বাচনে বিএনপির দলীয় প্রার্থী হিসেবে জেলা বিএনপি সহসভাপতি ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিসকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি।

বুধবার রাতে গোলাপগঞ্জ চৌমুহনীস্থ অস্থায়ী কার্যালয়ে উপজেলা ও পৌর বিএনপির যৌথ সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সভায় ৮ জনের নাম প্রস্তাব করা হলেও আলোচনার পর মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিসকে সমর্থন দিয়ে বাকি ৭ জন তাদের নাম প্রত্যাহার করে নেন।

তবে পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন দলীয় প্রতীক ছাড়া স্বতন্ত্র প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করবেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন বলেন- দলীয় সিদ্ধান্ত যাই হোক আমি এলাকাবাসীর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নির্বাচন করবো।

উপজেলা বিএনপি’র সাবেক আহবায়ক মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস বলেন- দলীয় প্রার্থী হিসেবে আমাকে মনোনয়ন দেওয়ায় আমি দৃঢ় বিশ্বাসী ধানের শীষ’র বিজয় হবে।

এদিকে মঙ্গলবার আওয়ামীলীগের এক বর্ধিত সভা থেকে তিন জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা কেন্দ্রে পাঠানো হয়। কেন্দ্রে প্রেরিত তিনজনের মধ্যে সাবেক পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগ’র প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া আহমদ পাপলুকে বেচে নিয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী অন্য দুজন হচ্ছেন যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রুয়েল আহমদ।

নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল জানান, দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী। তবে দলীয় মনোনয়ন না পেলেও নির্বাচনে দলীয় প্রতীক ছাড়া প্রার্থী হিসেবে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন। ফলে বড় দুই দলে একাধিক প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে থাকার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

প্রধান দুই দলের মনোনয়নের বাইরে নির্বাচনী মাঠে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আছেন বিগত পৌর নির্বাচনে ২য় স্থান অর্জনকারী বিশিষ্ট সমাজসেবক আমিনুর রহমান লিপন, খেলাফত মজলিসের আমিনুল ইসলাম আমিন।

উল্লেখ্য, প্রয়াত মরহুম পৌর মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরী ৩১শে মে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। গত ১১ জুলাই মেয়র পদটি শূন্য ঘোষণা করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ।

Facebook Comments

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি :: সিলেটের গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র পদে উপনির্বাচনে বিএনপির দলীয় প্রার্থী হিসেবে জেলা বিএনপি সহসভাপতি ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিসকে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি।

বুধবার রাতে গোলাপগঞ্জ চৌমুহনীস্থ অস্থায়ী কার্যালয়ে উপজেলা ও পৌর বিএনপির যৌথ সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সভায় ৮ জনের নাম প্রস্তাব করা হলেও আলোচনার পর মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিসকে সমর্থন দিয়ে বাকি ৭ জন তাদের নাম প্রত্যাহার করে নেন।

তবে পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন দলীয় প্রতীক ছাড়া স্বতন্ত্র প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করবেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন বলেন- দলীয় সিদ্ধান্ত যাই হোক আমি এলাকাবাসীর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নির্বাচন করবো।

উপজেলা বিএনপি’র সাবেক আহবায়ক মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস বলেন- দলীয় প্রার্থী হিসেবে আমাকে মনোনয়ন দেওয়ায় আমি দৃঢ় বিশ্বাসী ধানের শীষ’র বিজয় হবে।

এদিকে মঙ্গলবার আওয়ামীলীগের এক বর্ধিত সভা থেকে তিন জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা কেন্দ্রে পাঠানো হয়। কেন্দ্রে প্রেরিত তিনজনের মধ্যে সাবেক পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগ’র প্রচার সম্পাদক জাকারিয়া আহমদ পাপলুকে বেচে নিয়েছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী অন্য দুজন হচ্ছেন যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রুয়েল আহমদ।

নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাজ্য যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল জানান, দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী। তবে দলীয় মনোনয়ন না পেলেও নির্বাচনে দলীয় প্রতীক ছাড়া প্রার্থী হিসেবে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন। ফলে বড় দুই দলে একাধিক প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে থাকার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

প্রধান দুই দলের মনোনয়নের বাইরে নির্বাচনী মাঠে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আছেন বিগত পৌর নির্বাচনে ২য় স্থান অর্জনকারী বিশিষ্ট সমাজসেবক আমিনুর রহমান লিপন, খেলাফত মজলিসের আমিনুল ইসলাম আমিন।

উল্লেখ্য, প্রয়াত মরহুম পৌর মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরী ৩১শে মে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। গত ১১ জুলাই মেয়র পদটি শূন্য ঘোষণা করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর