আজঃ ১১ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - সকাল ৯:৫০

গোলাপগঞ্জে ঐতিহাসিক মুজিব নগর দিবস পালিত

Published: এপ্রি ১৭, ২০১৮ - ৮:৪১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদাদতা::গোলাপগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক মুজিব নগর দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৩টার সময় গোলাপগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজেনে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে ১৭ এপ্রিল ২০১৮ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন উপলক্ষে “ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা” শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা খায়রুল আমীন’র সভাপতিত্বে ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা অভিজিৎ কুমার পালের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার বড় অংশ জুড়ে আছে মুজিব নগর সরকারের ভূমিকা। স্বাধীনতা বিরোধী চক্র এখনো সক্রিয়। স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের টার্গেট মুক্তিযোদ্ধারা বার বার হচ্ছেন। মুক্তিযোদ্ধারা যাতে প্রাপ্য সম্মান হতে বঞ্চিত না হন সে সম্পর্কে সবাইকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলহাজ্ব শফিকুর রহমান, সাবেক কমান্ডার লালা মিয়া, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল হামিদ সরকার, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. তাওহিদ আহমেদ, গোলাপগঞ্জ উপজেলা মডেল থানা অপারেশন ইন্সপেক্টর দেলোয়ার হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড উপজেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি দস্তগির খান ছামিন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খাদিজা খাতুন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সহকারী কমান্ডার আবদুল মুহিত, ইউপি কমান্ডার আবদুল খালিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল কাদির প্রমুখ।

Facebook Comments

নিজস্ব সংবাদাদতা::গোলাপগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদায় ঐতিহাসিক মুজিব নগর দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৩টার সময় গোলাপগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজেনে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে ১৭ এপ্রিল ২০১৮ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন উপলক্ষে “ ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা” শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা খায়রুল আমীন’র সভাপতিত্বে ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা অভিজিৎ কুমার পালের পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার বড় অংশ জুড়ে আছে মুজিব নগর সরকারের ভূমিকা। স্বাধীনতা বিরোধী চক্র এখনো সক্রিয়। স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের টার্গেট মুক্তিযোদ্ধারা বার বার হচ্ছেন। মুক্তিযোদ্ধারা যাতে প্রাপ্য সম্মান হতে বঞ্চিত না হন সে সম্পর্কে সবাইকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আলহাজ্ব শফিকুর রহমান, সাবেক কমান্ডার লালা মিয়া, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল হামিদ সরকার, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. তাওহিদ আহমেদ, গোলাপগঞ্জ উপজেলা মডেল থানা অপারেশন ইন্সপেক্টর দেলোয়ার হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড উপজেলা শাখার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি দস্তগির খান ছামিন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা খাদিজা খাতুন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সহকারী কমান্ডার আবদুল মুহিত, ইউপি কমান্ডার আবদুল খালিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল কাদির প্রমুখ।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর