আজঃ ২৭শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ - ১১ই ডিসেম্বর ২০১৮ - রাত ১১:১৫

গোলাপগঞ্জে উপ-নির্বাচনে নতুন চমক, আওয়ামী (বিদ্রোহী প্রার্থী) রাবেলের বিজয়!

Published: অক্টো ০৩, ২০১৮ - ৯:২১ অপরাহ্ণ

সাকিব আল মামুন, গোলাপগঞ্জ :: গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপ-নির্বাচনে বেসরকারিভাবে আওয়ামী (বিদ্রোহী প্রার্থী ) যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগ’র যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল (জগ) প্রতীক নিয়ে ৪১৪৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ’র দলীয় প্রার্থী গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ও সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলু নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৯৫৭ ভোট ।

এছাড়া পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন (মোবাইল ফোন) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৫৫৬ ভোট এবং উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস (নারিকেল গাছ) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৩৫৪ ভোট। গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপ-নির্বাচনে মোট ৯টি কেন্দ্রের ৯টি ওয়ার্ডে মোট ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটারের মধ্যে ভোটাধীকার প্রয়োগ করেন ১৫১০৬জন ভোটার। এর মধ্যে ভোট বাতিল হয়েছে ৯০টি। নির্বাচনে প্রদত্ত শতকরা ভোটের হার ৬৯.৮৩%। বেসরকারী ফলাফল ঘোষণা করেন সিলেট জেলা নির্বাচন অফিসার ও গোলাপগঞ্জ পৌরসভার উপ নির্বাচনের দায়িত্বে রিটার্নিং অফিসার খুরশেদ আলম।

নির্বাচনী এলাকা সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহন সম্পন্ন হয়। সকাল থেকে ভোটাররা বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মাধ্যমে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

নির্বাচন প্রসঙ্গে সহকারী রিটানিং (উপজেলা নির্বাচন) অফিসার সাইদুর রহমান জানান, সুষ্ট ও নিরপেক্ষ ভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। দু-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া কোথাও বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। তিনি আরও বলেন, সুষ্ট নির্বাচনের লক্ষে নির্বাচনী এলাকায় বিজিবি, পুলিশ, আনসার, র‌্যাব সহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার লোক তৎপরতা জোরদার ছিল। আইন শৃঙখলা বাহিনীর মধ্যে ৪জন নির্বাহী এবং ১জন জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট, পুলিশের ৩টি স্টাইকিং ফোর্স, একটি মোবাইল টিম, ৩ প্লাটুন বিজিবি এবং র‌্যাব সদস্যের ৪টি চৌকস দল নির্বাচনী মাঠে সদা তৎপর ছিল।

পৌর শহরের গোলাপগঞ্জ সরকারি এমসি একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজ, ২নং ফুলবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোঁষগাও মাদ্রাসা, হাজী জছির আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দাড়িপাতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোগারকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রনকেলী ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কোয়ালিটি স্কুল, সৈয়দ তানভীর হোসেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এই ৯টি প্রতিষ্টানের মোট ৫৯টি কক্ষে ভোট গ্রহণ করা।

উল্লেখ্য, গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরী গত ৩১ মে ২০১৮খ্রিঃ মৃত্যুবরণ করেন। গত ১১ জুলাই মেয়র পদটি শূন্য ঘোষণা করেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।

Facebook Comments

সাকিব আল মামুন, গোলাপগঞ্জ :: গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপ-নির্বাচনে বেসরকারিভাবে আওয়ামী (বিদ্রোহী প্রার্থী ) যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগ’র যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলাম রাবেল (জগ) প্রতীক নিয়ে ৪১৪৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ’র দলীয় প্রার্থী গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক ও সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলু নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৯৫৭ ভোট ।

এছাড়া পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন (মোবাইল ফোন) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৫৫৬ ভোট এবং উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মহিউস সুন্নাহ চৌধুরী নার্জিস (নারিকেল গাছ) প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩৩৫৪ ভোট। গোলাপগঞ্জ পৌরসভা মেয়র পদে উপ-নির্বাচনে মোট ৯টি কেন্দ্রের ৯টি ওয়ার্ডে মোট ২১হাজার ৬শ ৩২জন ভোটারের মধ্যে ভোটাধীকার প্রয়োগ করেন ১৫১০৬জন ভোটার। এর মধ্যে ভোট বাতিল হয়েছে ৯০টি। নির্বাচনে প্রদত্ত শতকরা ভোটের হার ৬৯.৮৩%। বেসরকারী ফলাফল ঘোষণা করেন সিলেট জেলা নির্বাচন অফিসার ও গোলাপগঞ্জ পৌরসভার উপ নির্বাচনের দায়িত্বে রিটার্নিং অফিসার খুরশেদ আলম।

নির্বাচনী এলাকা সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহন সম্পন্ন হয়। সকাল থেকে ভোটাররা বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মাধ্যমে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

নির্বাচন প্রসঙ্গে সহকারী রিটানিং (উপজেলা নির্বাচন) অফিসার সাইদুর রহমান জানান, সুষ্ট ও নিরপেক্ষ ভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। দু-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া কোথাও বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। তিনি আরও বলেন, সুষ্ট নির্বাচনের লক্ষে নির্বাচনী এলাকায় বিজিবি, পুলিশ, আনসার, র‌্যাব সহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার লোক তৎপরতা জোরদার ছিল। আইন শৃঙখলা বাহিনীর মধ্যে ৪জন নির্বাহী এবং ১জন জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট, পুলিশের ৩টি স্টাইকিং ফোর্স, একটি মোবাইল টিম, ৩ প্লাটুন বিজিবি এবং র‌্যাব সদস্যের ৪টি চৌকস দল নির্বাচনী মাঠে সদা তৎপর ছিল।

পৌর শহরের গোলাপগঞ্জ সরকারি এমসি একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজ, ২নং ফুলবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোঁষগাও মাদ্রাসা, হাজী জছির আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দাড়িপাতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘোগারকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রনকেলী ২নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, কোয়ালিটি স্কুল, সৈয়দ তানভীর হোসেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এই ৯টি প্রতিষ্টানের মোট ৫৯টি কক্ষে ভোট গ্রহণ করা।

উল্লেখ্য, গোলাপগঞ্জ পৌরসভার মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরী গত ৩১ মে ২০১৮খ্রিঃ মৃত্যুবরণ করেন। গত ১১ জুলাই মেয়র পদটি শূন্য ঘোষণা করেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর