আজঃ ১১ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - রাত ৩:৫৯

কৃষকের ব্যাংক হিসাবে জমেছে ২৮২ কোটি টাকা

Published: মার্চ ০১, ২০১৮ - ১০:১৬ অপরাহ্ণ

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক:: ব্যাংকগুলোর বিশেষ উদ্যোগে ১০ টাকা দিয়ে কৃষকের ব্যাংক হিসাব খোলার পরিমাণ বাড়ছে। ২০১৭ সালের ডিসেম্বর শেষে বিশেষ এ সুবিধার আওতায় ১ কোটি ৭৪ লাখ ৩৩ হাজার ২১৭ জন স্বল্প আয়ের মানুষ হিসাব খুলেছেন। যার মধ্যে কৃষকদের অবদান ৫৩ শতাংশ। আর কৃষকদের এই হিসাবে মোট জমার পরিমাণ প্রায় ২৮২কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত আর্থিক অন্তর্ভূক্তির আওতায় খোলা বিশেষ হিসাবের ত্রৈমাসিক অগ্রগতি প্রতিবেদন এ তথ্য উঠে এসেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ব্যাংকিং সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় ১০, ৫০ ও ১০০ টাকার বিনিময়ে অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ২০১০ সাল থেকে একের পর এক নির্দেশনার মাধ্যমে কৃষকসহ আর্থিক সেবা প্রত্যাশী জনগোষ্ঠীর জন্য এ ধরনের অ্যাকাউন্ট খোলা হচ্ছে। এসব হিসাব সচল রাখতে ২০১৫ সালে ২০০ কোটি টাকার একটি পুনঃঅর্থায়ন তহবিল করা হয়েছে। যেখান থেকে মাত্র সাড়ে ৯ শতাংশ সুদে ঋণ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। এ ছাড়াও স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য এসব হিসাব খোলা ও পরিচালনায় কোনো চার্জ বা ফি কাটা হয় না। ফলে এ শ্রেণীর মানুষের ব্যাংক হিসাব খোলার প্রবণতা বেড়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কৃষকদের ১০ টাকায় খোলা হিসাব কার্যক্রমে ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট হিসাব সংখ্যা ছিল প্রায় ৯০ লাখ ৪৩ হাজার। ২০১৭ সালের ডিসেম্বর শেষে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯২ লাখ ৩৭ হাজার। অর্থাৎ এক বছরে কৃষকের হিসাব সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ২ লাখ। এক বছরে বৃদ্ধির হার ২ দশমিক ১৪ শতাংশ। তবে বিগত ত্রৈমাসিকের তুলনায় চলতি ত্রৈমাসিকে হিসাব সংখ্যা বেড়েছে মাত্র শুন্য দশমিক ৫ শতাংশ।

তথ্যমতে, কৃষি কর্মকাণ্ড সরকারি সহায়তার অংশ হিসেবে সরকার প্রদত্ত বিভিন্ন ভর্তুকী প্রদানসহ অন্যান্য ব্যাংকিং সেবা প্রদানের উদ্দেশ্যে কৃষকদের হিসাব খোলা হয়। সরকারি ভর্তুকিপ্রাপ্ত এমন হিসাব সংখ্যা ১৯ লাখ ৫৬ হাজার ৬৩০টি এবং এসব হিসাবে জমার পরিমান প্রায় ৪৮ কোটি টাকা। অন্যদিকে, ১০ টাকার কৃষকের হিসাবের মধ্যে ২৪ হাজার ২৪ টি হিসাবের মাধ্যমে উপকারভোগীদের মাঝে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিজস্ব ২০০ কোটি টাকার তহবিল হতে পুনঃঅর্থায়নকৃত ঋণ বিতরণ করেছে প্রায় ৬৩ কোটি টাকা।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, আর্থিক অন্তর্ভুক্তি কর্মসূচির আওতায় কৃষকের খোলা ব্যাংক হিসাব ব্যতীত অন্যান্য বিভিন্ন শ্রেণির হিসাব সংখ্যা মোট হিসাবের ৩৭ শতাংশ। সরকারি বিভিন্ন কর্মসূচির আওতায় বিভিন্ন ভাতা ও বেতন প্রদান ছাড়াও আর্থিক সেবার আওতা বৃদ্ধির জন্য এ সকল হিসাব খোলা হয়েছে। ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কৃষকের হিসাব ব্যতীত অন্যান্য বিভিন্ন খাতে খোলা মোট পুঞ্জীভূত হিসাব সংখ্যা ৮১ লাখ ৯৫ হাজার ২২৭ টি। এর মধ্যে সরকারি মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ৬টি ও ২টি বিশেষায়িত ব্যাংকে ৭৮ লাখ ৩১ হাজার ৫৮০টি ব্যাংক হিসাব খোলা হয়েছে।

Facebook Comments

সিলেট প্রতিদিন ডেস্ক:: ব্যাংকগুলোর বিশেষ উদ্যোগে ১০ টাকা দিয়ে কৃষকের ব্যাংক হিসাব খোলার পরিমাণ বাড়ছে। ২০১৭ সালের ডিসেম্বর শেষে বিশেষ এ সুবিধার আওতায় ১ কোটি ৭৪ লাখ ৩৩ হাজার ২১৭ জন স্বল্প আয়ের মানুষ হিসাব খুলেছেন। যার মধ্যে কৃষকদের অবদান ৫৩ শতাংশ। আর কৃষকদের এই হিসাবে মোট জমার পরিমাণ প্রায় ২৮২কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত আর্থিক অন্তর্ভূক্তির আওতায় খোলা বিশেষ হিসাবের ত্রৈমাসিক অগ্রগতি প্রতিবেদন এ তথ্য উঠে এসেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, ব্যাংকিং সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় ১০, ৫০ ও ১০০ টাকার বিনিময়ে অ্যাকাউন্ট খোলার সুযোগ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ২০১০ সাল থেকে একের পর এক নির্দেশনার মাধ্যমে কৃষকসহ আর্থিক সেবা প্রত্যাশী জনগোষ্ঠীর জন্য এ ধরনের অ্যাকাউন্ট খোলা হচ্ছে। এসব হিসাব সচল রাখতে ২০১৫ সালে ২০০ কোটি টাকার একটি পুনঃঅর্থায়ন তহবিল করা হয়েছে। যেখান থেকে মাত্র সাড়ে ৯ শতাংশ সুদে ঋণ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। এ ছাড়াও স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য এসব হিসাব খোলা ও পরিচালনায় কোনো চার্জ বা ফি কাটা হয় না। ফলে এ শ্রেণীর মানুষের ব্যাংক হিসাব খোলার প্রবণতা বেড়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কৃষকদের ১০ টাকায় খোলা হিসাব কার্যক্রমে ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট হিসাব সংখ্যা ছিল প্রায় ৯০ লাখ ৪৩ হাজার। ২০১৭ সালের ডিসেম্বর শেষে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯২ লাখ ৩৭ হাজার। অর্থাৎ এক বছরে কৃষকের হিসাব সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ২ লাখ। এক বছরে বৃদ্ধির হার ২ দশমিক ১৪ শতাংশ। তবে বিগত ত্রৈমাসিকের তুলনায় চলতি ত্রৈমাসিকে হিসাব সংখ্যা বেড়েছে মাত্র শুন্য দশমিক ৫ শতাংশ।

তথ্যমতে, কৃষি কর্মকাণ্ড সরকারি সহায়তার অংশ হিসেবে সরকার প্রদত্ত বিভিন্ন ভর্তুকী প্রদানসহ অন্যান্য ব্যাংকিং সেবা প্রদানের উদ্দেশ্যে কৃষকদের হিসাব খোলা হয়। সরকারি ভর্তুকিপ্রাপ্ত এমন হিসাব সংখ্যা ১৯ লাখ ৫৬ হাজার ৬৩০টি এবং এসব হিসাবে জমার পরিমান প্রায় ৪৮ কোটি টাকা। অন্যদিকে, ১০ টাকার কৃষকের হিসাবের মধ্যে ২৪ হাজার ২৪ টি হিসাবের মাধ্যমে উপকারভোগীদের মাঝে বাংলাদেশ ব্যাংকের নিজস্ব ২০০ কোটি টাকার তহবিল হতে পুনঃঅর্থায়নকৃত ঋণ বিতরণ করেছে প্রায় ৬৩ কোটি টাকা।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, আর্থিক অন্তর্ভুক্তি কর্মসূচির আওতায় কৃষকের খোলা ব্যাংক হিসাব ব্যতীত অন্যান্য বিভিন্ন শ্রেণির হিসাব সংখ্যা মোট হিসাবের ৩৭ শতাংশ। সরকারি বিভিন্ন কর্মসূচির আওতায় বিভিন্ন ভাতা ও বেতন প্রদান ছাড়াও আর্থিক সেবার আওতা বৃদ্ধির জন্য এ সকল হিসাব খোলা হয়েছে। ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কৃষকের হিসাব ব্যতীত অন্যান্য বিভিন্ন খাতে খোলা মোট পুঞ্জীভূত হিসাব সংখ্যা ৮১ লাখ ৯৫ হাজার ২২৭ টি। এর মধ্যে সরকারি মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ৬টি ও ২টি বিশেষায়িত ব্যাংকে ৭৮ লাখ ৩১ হাজার ৫৮০টি ব্যাংক হিসাব খোলা হয়েছে।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর