আজঃ ১১ই আশ্বিন ১৪২৫ - ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ - সকাল ৯:৪৮

এহিয়া চৌধুরী এমপি হয়ে সরকারের টাকা লুটপাট করেছেন-শফিক চৌধুরী

Published: এপ্রি ১৭, ২০১৮ - ১০:০৮ অপরাহ্ণ

বিশ্বনাথ সংবাদদাতা::সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেছেন, বাংলার মা ও মাটিতে আওয়ামী লীগের জন্ম হয়েছে। আওয়ামী লীগ জাতে মাতাল, তালে ঠিক। ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে নমিনেশন নিয়ে এহিয়া চৌধুরী এমপি হয়ে সরকারের টাকা লুটপাট করেছেন। আগামী সংসদ নির্বাচেন সিলেট-২ আসন আর জাতীয় পার্টিকে দেওয়া হবে না। প্রয়োজনে তাদেরকে রংপুর দেওয়া হবে। তিনি বলেন, শুনেছি একজন মহিলা নির্বাচনে প্রার্থী হবেন। আমরা যখন ইলিয়াস আলীকে পরাজিত করেছি, তখন তাকেও দেশের বাড়িতে পাটাবো।

তিনি আরও বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মগ্রহণ করেছিলেন বলেই আমরা স্বাধীন বাংলা পেয়েছি। আর এখন তাঁরই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে আমরা পাচ্ছি উন্নয়ন এবং দেশও রয়েছে উন্নয়নের মহাসড়কে। বিগত সময়ে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার দেশকে জঙ্গি-সন্ত্রাসী রাষ্ট্রে পরিণত করে ছিলো। একের পর এক গ্রেনেড নিক্ষেপ করে তারা হত্যা করে ছিলো আওয়ামী লীগের অনেক শীর্ষ নেতা-কর্মীকে। তাদের আমলে উন্নয়ন বঞ্চিত ছিলো দেশ। এরপর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে সরকার গঠিত হওয়ার ফলে ‘জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ’কে জাদুঘরে পাঠিয়ে দেশকে উন্নয়নের দিকে পরিচালিত করেন শেখ হাসিনা। আসন্ন নির্বাচনেও সারা দেশে নৌকার বিজয়ে দেশে সু-দিন বহাল থাকবে। নৌকার মনোনয়ন যাকে দেওয়া হবে আমরা তার পক্ষেই কাজ করবো। তাই নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে এখন থেকেই সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি মঙ্গলবার (১৭এপ্রিল) দুপুরে সিলেটের বিশ্বনাথে ‘ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস’ উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথাগুলো বলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খানের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নাজনিন হোসেন, উপদেষ্ঠা মন্ডলীর সদস্য এস এম নুনু মিয়া। সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সুফি শামছুল ইসলাম।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির আলী চেয়ারম্যান ও যুগ্ম সম্পাদক মকদ্দছ আলীর যৌথ পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোঃ আসাদুজ্জামান, যুগ্ম সম্পাদক শাহ ফয়েজ আহমদ সেবুল, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন, রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ফখর উদ্দিন মাস্টার, বন ও পরিবেশ সম্পাদক রুনু কান্ত দে, স্বাস্থ্য সম্পাদক অধ্যাপক জহরুল হোসেন জহির, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, সহ দপ্তর সম্পাদক নুরুল হক মেম্বার, অর্থ সম্পাদক নুরুল ইসলাম, কার্যনির্বাহী সদস্য মিজানুর রহমান মিজান, নিজাম উদ্দিন, দশঘর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত আলী, অলংকারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তফজ্জুল আলী, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেন, যুবলীগ নেতা অ্যাডভোকেট সায়েদ আহমদ।

সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সেলিম আহমদ সেলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম জুয়েল, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আবদুল মতিন, দপ্তর সম্পাদক সাহিদুল ইসলাম সাহিদ, প্রচার সম্পাদক নিখিল পাল, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক রনজিত ধর রন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সাধণ চন্দ্র দাস, সহ প্রচার সম্পাদক ও প্রকাশনা সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, কার্যনির্বাহী সদস্য ডাক্তার শানুর হোসেন, শেখ নূর মিয়া, আহমদ আলী, এমদাদুল হক, আনোয়ার আলী, নাজমুল আলম চৌধুরী অপু, উপদেষ্ঠা শের আলী, সংগঠক বোরহান উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মোমিন, দিলোয়ার হোসেন রুপন, আরশ আলী, আবদুন নূর মেম্বার, বীরেন্দ্র কর, মিজাজুল ইসলাম, ময়না মিয়া, শানুর আহমদ জয়দু, আবু বক্কর মোঃ ফয়ছল, কৃষক লীগ নেতা ছগির আলী, উপজেলা শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি সুন্দর আলী, যুগ্ম সম্পাদক রবিউল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আরান দে, যুবলীগ নেতা আবদুল হক, শাহ শহীদুল ইসলাম, তোফায়েল আহমদ, গিয়স উদ্দিন, আবুল কালাম আজাদ, মনোহর হোসেন মুন্না, তৈমুছ আলী, নাজিরুল ইসলাম খান, সঞ্জিত আচার্য্য, দবির মিয়া, ছালিক মিয়া, এমদাদ হোসেন নাইম, জাহেদ আহমদ, রিপন আহমদ, রেদুয়ান আহমদ, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রফিক মিয়া, সিজিল মিয়া, নিজাম উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শীতল বৈদ্য, সহ সভাপতি শিপন আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা মিয়াদ আহমদ, রুবেল আহমদ প্রমুখ’সহ আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Facebook Comments

বিশ্বনাথ সংবাদদাতা::সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেছেন, বাংলার মা ও মাটিতে আওয়ামী লীগের জন্ম হয়েছে। আওয়ামী লীগ জাতে মাতাল, তালে ঠিক। ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে নমিনেশন নিয়ে এহিয়া চৌধুরী এমপি হয়ে সরকারের টাকা লুটপাট করেছেন। আগামী সংসদ নির্বাচেন সিলেট-২ আসন আর জাতীয় পার্টিকে দেওয়া হবে না। প্রয়োজনে তাদেরকে রংপুর দেওয়া হবে। তিনি বলেন, শুনেছি একজন মহিলা নির্বাচনে প্রার্থী হবেন। আমরা যখন ইলিয়াস আলীকে পরাজিত করেছি, তখন তাকেও দেশের বাড়িতে পাটাবো।

তিনি আরও বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মগ্রহণ করেছিলেন বলেই আমরা স্বাধীন বাংলা পেয়েছি। আর এখন তাঁরই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে আমরা পাচ্ছি উন্নয়ন এবং দেশও রয়েছে উন্নয়নের মহাসড়কে। বিগত সময়ে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার দেশকে জঙ্গি-সন্ত্রাসী রাষ্ট্রে পরিণত করে ছিলো। একের পর এক গ্রেনেড নিক্ষেপ করে তারা হত্যা করে ছিলো আওয়ামী লীগের অনেক শীর্ষ নেতা-কর্মীকে। তাদের আমলে উন্নয়ন বঞ্চিত ছিলো দেশ। এরপর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে সরকার গঠিত হওয়ার ফলে ‘জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদ’কে জাদুঘরে পাঠিয়ে দেশকে উন্নয়নের দিকে পরিচালিত করেন শেখ হাসিনা। আসন্ন নির্বাচনেও সারা দেশে নৌকার বিজয়ে দেশে সু-দিন বহাল থাকবে। নৌকার মনোনয়ন যাকে দেওয়া হবে আমরা তার পক্ষেই কাজ করবো। তাই নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে এখন থেকেই সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি মঙ্গলবার (১৭এপ্রিল) দুপুরে সিলেটের বিশ্বনাথে ‘ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস’ উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথাগুলো বলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খানের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নাজনিন হোসেন, উপদেষ্ঠা মন্ডলীর সদস্য এস এম নুনু মিয়া। সভার শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সুফি শামছুল ইসলাম।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমির আলী চেয়ারম্যান ও যুগ্ম সম্পাদক মকদ্দছ আলীর যৌথ পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মোঃ আসাদুজ্জামান, যুগ্ম সম্পাদক শাহ ফয়েজ আহমদ সেবুল, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন, রামপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ফখর উদ্দিন মাস্টার, বন ও পরিবেশ সম্পাদক রুনু কান্ত দে, স্বাস্থ্য সম্পাদক অধ্যাপক জহরুল হোসেন জহির, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম, সহ দপ্তর সম্পাদক নুরুল হক মেম্বার, অর্থ সম্পাদক নুরুল ইসলাম, কার্যনির্বাহী সদস্য মিজানুর রহমান মিজান, নিজাম উদ্দিন, দশঘর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন, বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত আলী, অলংকারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তফজ্জুল আলী, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আলতাব হোসেন, যুবলীগ নেতা অ্যাডভোকেট সায়েদ আহমদ।

সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সেলিম আহমদ সেলিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম জুয়েল, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক আবদুল মতিন, দপ্তর সম্পাদক সাহিদুল ইসলাম সাহিদ, প্রচার সম্পাদক নিখিল পাল, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক রনজিত ধর রন, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সাধণ চন্দ্র দাস, সহ প্রচার সম্পাদক ও প্রকাশনা সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন, কার্যনির্বাহী সদস্য ডাক্তার শানুর হোসেন, শেখ নূর মিয়া, আহমদ আলী, এমদাদুল হক, আনোয়ার আলী, নাজমুল আলম চৌধুরী অপু, উপদেষ্ঠা শের আলী, সংগঠক বোরহান উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মোমিন, দিলোয়ার হোসেন রুপন, আরশ আলী, আবদুন নূর মেম্বার, বীরেন্দ্র কর, মিজাজুল ইসলাম, ময়না মিয়া, শানুর আহমদ জয়দু, আবু বক্কর মোঃ ফয়ছল, কৃষক লীগ নেতা ছগির আলী, উপজেলা শ্রমিক লীগের সহ সভাপতি সুন্দর আলী, যুগ্ম সম্পাদক রবিউল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আরান দে, যুবলীগ নেতা আবদুল হক, শাহ শহীদুল ইসলাম, তোফায়েল আহমদ, গিয়স উদ্দিন, আবুল কালাম আজাদ, মনোহর হোসেন মুন্না, তৈমুছ আলী, নাজিরুল ইসলাম খান, সঞ্জিত আচার্য্য, দবির মিয়া, ছালিক মিয়া, এমদাদ হোসেন নাইম, জাহেদ আহমদ, রিপন আহমদ, রেদুয়ান আহমদ, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রফিক মিয়া, সিজিল মিয়া, নিজাম উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শীতল বৈদ্য, সহ সভাপতি শিপন আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা মিয়াদ আহমদ, রুবেল আহমদ প্রমুখ’সহ আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর