আজঃ ৩০শে অগ্রহায়ণ ১৪২৫ - ১৪ই ডিসেম্বর ২০১৮ - রাত ১০:০৭

এবার জি বাংলায় মঞ্চ কাঁপালেন ঢাকার নোবেল

Published: সেপ্টে ২৪, ২০১৮ - ৪:০৯ অপরাহ্ণ

বিনোদন ডেস্ক :: ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল জি বাংলায় প্রচারিত ‘সারেগামা-পা’ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের জয় যেন অবধারিত।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর কণ্ঠের জাদুর সঙ্গে হৃদয় কাঁপানো শিস বাজিয়ে দুই বাংলার তারকা হয়েছিলেন জামালপুরের অবন্তী সিঁথি।

সেই রেশ কাটতে না কাটতেই বাংলাদেশের এ কৃতিত্বের পালে হাওয়া দিলেন ঢাকার ছেলে মাইনুল আহসান নোবেল।

শনিবার রাতে বাংলাদেশের এ প্রতিযোগী গান গেয়ে ‘সারেগামা-পা’ এর মঞ্চ কাঁপিয়ে দিয়েছেন।

পেয়েছেন বিচারকদের কাছ থেকে গোল্ডেন গিটার।

তার গাওয়া জেমসের কালজয়ী ‘বাবা’ গানটি সামাজিক মাধ্যমে রীতিমতো ‘ভাইরাল’।

গানটি নোবেল নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে শেয়ার করার পর ইতিমধ্যে ৭৫ হাজার বার দেখা হয়ে গেছে। নিচে জমা পড়েছে শুভকামনা জানিয়ে অসংখ্য কমেন্ট।

অথচ জেমস এর কালজয়ী ‘বাবা’ গানটি নাকি কখনও গাওয়া হয়নি তার। এমনটাই জানালেন নোবেল।

তিনি বলেন, ‘আমি মূলত রক গান করি। কিন্তু কখনো গুরু জেমসের এই গানটা করিনি। কিন্তু এখানে এই দুঃসাহসটা করে ফেললাম। ভাবলাম, দেখা যাক কী হয়।’

ছোটবেলা থেকেই গানের সঙ্গে মিতালি নোবেলের। যদিও কোনো গুরুর কাছে শিক্ষা নেননি।

এর আগে বাংলালিংক নেক্সট টিউবার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে সেরা ছয়ে এসেছিলেন তিনি।

ইউটিউবে আছে তার ‘নোবেলম্যান’ নামে চ্যানেল । সেখানে প্রায়ই ‘কভার’ গান আপলোড করেন নোবেল। ফেসবুকে বেশ জনপ্রিয় তিনি।

সারেগামা-পায় ‘বাবা’ গানটি পরে উপস্থাপক যিশুর অনূরোধে নোবেল গান আইয়ুব বাচ্চুর কালজয়ী ‘সেই তুমি’ গানটি।

অনুষ্ঠানটির ফেসবুক পেইজে আপলোডকৃত নোবেলের এ পারফরম্যান্সে মনমুগ্ধ ওপার বাংলা।

সেখানে বহু ভারতীয়দের নোবেলকে এ প্রতিযোগিতায় সমর্থন করতে দেখা গেছে। নোবেলকে বাংলাদেশের গর্ব বলেছেন কেউ কেউ।

একজন লিখেছেন, সারাদেশ আপনাকে অভিনন্দন জানাচ্ছে এবং কলকাতার মানুষ আপনাকে পুরো সমর্থন জানাচ্ছে।

Facebook Comments

বিনোদন ডেস্ক :: ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল জি বাংলায় প্রচারিত ‘সারেগামা-পা’ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের জয় যেন অবধারিত।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর কণ্ঠের জাদুর সঙ্গে হৃদয় কাঁপানো শিস বাজিয়ে দুই বাংলার তারকা হয়েছিলেন জামালপুরের অবন্তী সিঁথি।

সেই রেশ কাটতে না কাটতেই বাংলাদেশের এ কৃতিত্বের পালে হাওয়া দিলেন ঢাকার ছেলে মাইনুল আহসান নোবেল।

শনিবার রাতে বাংলাদেশের এ প্রতিযোগী গান গেয়ে ‘সারেগামা-পা’ এর মঞ্চ কাঁপিয়ে দিয়েছেন।

পেয়েছেন বিচারকদের কাছ থেকে গোল্ডেন গিটার।

তার গাওয়া জেমসের কালজয়ী ‘বাবা’ গানটি সামাজিক মাধ্যমে রীতিমতো ‘ভাইরাল’।

গানটি নোবেল নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে শেয়ার করার পর ইতিমধ্যে ৭৫ হাজার বার দেখা হয়ে গেছে। নিচে জমা পড়েছে শুভকামনা জানিয়ে অসংখ্য কমেন্ট।

অথচ জেমস এর কালজয়ী ‘বাবা’ গানটি নাকি কখনও গাওয়া হয়নি তার। এমনটাই জানালেন নোবেল।

তিনি বলেন, ‘আমি মূলত রক গান করি। কিন্তু কখনো গুরু জেমসের এই গানটা করিনি। কিন্তু এখানে এই দুঃসাহসটা করে ফেললাম। ভাবলাম, দেখা যাক কী হয়।’

ছোটবেলা থেকেই গানের সঙ্গে মিতালি নোবেলের। যদিও কোনো গুরুর কাছে শিক্ষা নেননি।

এর আগে বাংলালিংক নেক্সট টিউবার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে সেরা ছয়ে এসেছিলেন তিনি।

ইউটিউবে আছে তার ‘নোবেলম্যান’ নামে চ্যানেল । সেখানে প্রায়ই ‘কভার’ গান আপলোড করেন নোবেল। ফেসবুকে বেশ জনপ্রিয় তিনি।

সারেগামা-পায় ‘বাবা’ গানটি পরে উপস্থাপক যিশুর অনূরোধে নোবেল গান আইয়ুব বাচ্চুর কালজয়ী ‘সেই তুমি’ গানটি।

অনুষ্ঠানটির ফেসবুক পেইজে আপলোডকৃত নোবেলের এ পারফরম্যান্সে মনমুগ্ধ ওপার বাংলা।

সেখানে বহু ভারতীয়দের নোবেলকে এ প্রতিযোগিতায় সমর্থন করতে দেখা গেছে। নোবেলকে বাংলাদেশের গর্ব বলেছেন কেউ কেউ।

একজন লিখেছেন, সারাদেশ আপনাকে অভিনন্দন জানাচ্ছে এবং কলকাতার মানুষ আপনাকে পুরো সমর্থন জানাচ্ছে।

Facebook Comments

এ জাতীয় আরো খবর